কলকাতা: লালবাজার সেন্ট্রাল লকআপে তৈরি হল পৃথক ‘আইসোলেশন সেল’৷ করোনা সংক্রমণ রুখতে পৃথক সেলের ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে লালবাজার সূত্রে খবর৷

একটি প্রতারণার মামলায় গত ১৮ জুলাই একজনকে গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশ৷ তারপর তাকে আদালতে তোলা হলে বিচারক পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন৷ নিজেদের হেফাজতে পেয়ে পুলিশ শুরু করে জেরা৷ সেই জেরা চলাকালীন ২২ জুলাই অভিযুক্তের করোনার উপসর্গ দেখা দেয়৷ তারপর তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়৷ ২৩ জুলাই করোনা টেস্টের জন্য নমুনা পাঠানো হয়৷ সেই রিপোর্ট পজিটিভ আসে৷

তারপরই অভিযুক্তকে ভর্তি করা হয় কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে৷ ওই অভিযুক্ত যে সব তদন্তকারী পুলিশ অফিসার জেরা করছিলেন তাদেরকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়৷ তাদের মধ্যে গোয়েন্দা বিভাগের দুই অফিসারেরও করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

এই ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়েছে লালবাজার সেখানকার সেন্ট্রাল লকআপে পৃথক ‘আইসোলেশন সেল’ তৈরি করল৷ ফলে করোনা উপসর্গ থাকা অভিযুক্ত থেকে পুলিশকর্মীদের আর সংক্রমণ হওয়ার সম্ভাবনা নেই৷

লালবাজারে সেন্ট্রাল লকআপে মূলত গোয়েন্দা বিভাগের বিভিন্ন মামলায় ধৃত চোর, ছিনতাইকারী, কেপমারের মত অভিযুক্ত, ‘হাই রিস্ক’ অভিযুক্ত ও রাজনৈতিক মামলায় অভিযুক্তদের রাখা হয়৷

সেন্ট্রাল লকআপে থাকা কোনও অভিযুক্তের শরীরে জ্বর বা অন্য কোনও করোনার উপসর্গ দেখা দিলেই তাকে সঙ্গে সঙ্গে ওই পৃথক ‘আইসোলেশন সেল’ এ সরানোর হবে৷ তারপর তার করোনা টেস্ট করানো হবে৷ রিপোর্ট পজিটিভ এলেই হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করা হবে৷ এমনটাই লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে৷

কোনও অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পর তার থেকে যাতে কোনও পুলিশকর্মী করোনা আক্রান্ত না হন, সেজন্য আরও একগুচ্ছ নির্দেশিকা দিয়েছে লালবাজার। সেগুলি হল-

১) লকআপে ঢোকানোর আগে থার্মাল স্ক্যানিং বাধ্যতামূলক।

২) ধৃত অভিযুক্তদের মাস্ক এবং স্যানিটাইজার দিতে হবে এবং সেটা তারা যাতে ব্যবহার করে তা নিশ্চিত করতে হবে।

৩) একাধিক অভিযুক্ত থাকলে লকআপের ভেতরে সোশ্যাল ডিসটেন্স মেনে রাখতে হবে।

৪) লকআপ নিয়মিত স্যানিটাইজ করতে হবে।

কলকাতা পুলিশের প্রত্যেকটি থানার ক্ষেত্রেও একই নিয়ম মানতে বলা হয়েছে। তবে অনেক থানাতেই পৃথক সেলের পরিকাঠামো নেই বলে সূত্রের খবর৷

অন্যদিকে এই পর্যন্ত কলকাতা পুলিশে মোট আক্রান্তের সংখ্যাটা প্রায় ১৩০০৷ লালবাজার জানিয়েছিল,করোনা আক্রান্তের মধ্যে বেশির ভাগই সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন৷ মোট সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৮০০ এর বেশি পুলিশ কর্মী৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও