কলকাতা: প্রথম বছর আইএসএল সুপারহিট৷ কিন্তু দ্বিতীয় বছর থেকেই ভিউয়ারশিপ দ্রুত কমছে৷ তৃতীয় বছরে এসে আইএসএলের ভিউয়ারশিপ একেবারেই কমে গিয়েছে৷ তাই মহাচিন্তায় পড়ে গিয়েছে ফেডারেশন৷ চিন্তায় পড়ে গিয়েছেন নীতা আম্বানিরাও৷
১ অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে আইএসএল। স্টার গ্রুপের পাঁচটি চ্যানেলে সরাসরি দেখানো হয়েছে খেলা। ইংরাজির পাশাপাশি আরও চারটি আঞ্চলিক ভাষায় হয়েছে ধারাবিবরণী। কিন্তু ভিউয়ারশিপ অত্যন্ত দ্রুত গতিতে কমেছে। আইএসএল শুরু হয়েছিল ভরা উৎসব মরশুমে। তাই স্টার গ্রুপ আশা করেছিল তৃতীয় সপ্তাহ থেকে ভিউয়ারশিপ বাড়বে। ফুটবলপ্রেমীরা রিমোট নিয়ে তাদের চ্যানেলে হিট করবেন।
প্রথম দুই বার জি লিগ আর চীনের লিগের পর ভিউয়ারশিপের ক্ষেত্রে এশিয়ায় তিন নম্বর ছিল আইএসএল। সেমি-ফাইনাল আর ফাইনাল নিয়ে বিশাল হাইপ না উঠলে এবার আর তৃতীয় হওয়া সম্ভব নয়। মুম্বই, দিল্লি, পুনে আর কলকাতায় মাঠের দর্শক সংখ্যা দৃষ্টিকটুভাবে কমেছে। এটিকে’র সাতটি হোম ম্যাচের একটিতেও হাউসফুল হয়নি। তাই মহাচিন্তায় এটিকেও৷ সকলেই বিপদের প্রমোদ গুনছে৷