নাইরোবি:  ফের শক্তি বাড়াচ্ছে ইসলামিক স্টেট। বিশ্বের তাবড় তাবড় নেতাদের ঘুম উড়িয়ে নয়া ভিডিও প্রকাশ্যে আনল আইএস জঙ্গিরা। ১১ খ্রিস্টান পণবন্দির শিরচ্ছেদের ভিডিও প্রকাশ্যে আনল জঙ্গিরা। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে নাইজেরিয়ায়। সিরিয়ায় গত অক্টোবরে আইএস নেতা বাগদাদি খতম হওয়ার পরেই আইএস জঙ্গিরা বদলা নেওয়ার যে হুমকি দিয়েছিল। আর তা নেওয়ার জন্যেই ১১ পণবন্দিকে এভাবে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসলামিক স্টেট।

বিবিসিতে প্রকাশিত খবর জানাচ্চক্সহে, যাদের খুন করা হয়েছে তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু জানায়নি আইএস। তবে নাইহেজরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় বোর্নিও রাজ্যে এই পণবন্দিদেরকে গত সপ্তাহে কব্জায় নেওয়া হয় বলে তারা জানিয়েছে।

জঙ্গি গোষ্ঠীটির মুখপত্র ‘আমাক’ পণবন্দিদের হত্যার ৫৬ সেকেন্ডের ওই ভিডিও তৈরি করেছে। ভিডিওটি ২৬ ডিসেম্বর প্রকাশ করা হয়। বড়দিনের উৎসবের সময়ই এই হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে বলে মত বিশ্লেষকদের।

ভিডিওতে ১০ জনের শিরশ্ছেদ করতে এবং মাঝখানের একজন পণবন্দিদেরকে গুলি করে মারতে দেখা গিয়েছে। গত অক্টোবরে আইএস নেতা আবু বকর আল বাগদাদি এবং তার মুখপাত্র আবুল-হাসান আল মুহাজির নিহত হয়। এর ঠিক ২ মাস পর ২২ ডিসেম্বরে তাদের মৃত্যুর বদলা নিতে নতুন জিহাদি অভিযান শুরুর ঘোষণা দেয় আইএস। তখন থেকেই জঙ্গি গোষ্ঠীটি বহু দেশে এই অভিযানের নামে অনেক হামলা চালিয়েছে।

নাইজেরিয়ার ইসলামিক গোষ্ঠী বোকো হারামের একটি শাখাও এখন ‘ইসলামিক স্টেট ওয়েস্ট আফ্রিকা প্রভিন্স’ (ইসওয়াপ) এর ব্যানারে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে।