নয়াদিল্লি: চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট রাষ্ট্রসংঘের অ্যানালিটিক্যাল সাপোর্ট অ্যান্ড স্যাংকশনস মনিটরিং টিমের। তাঁদের সাম্প্রতিক একটি রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ভারতের কেরালা ও কর্নাটকে জঙ্গি সংগঠন আইএস-এর বহু সদস্য লুকিয়ে আছে।

লুকিয়ে থাকা জঙ্গিদের দিয়েই এবার দক্ষিণ ভারতের এই দুই রাজ্যে হামলার ছক কষছে আল কায়দা-সহ একাধিক জঙ্গি সংগঠন। ইতিমধ্যেই এই রিপোর্টটি প্রকাশ্যে আসার পর নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্র। বিশেষভাবে দক্ষিণ ভারতের রাজ্যগুলিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে।

রাষ্ট্রসংঘের অ্যানালিটিক্যাল সাপোর্ট অ্যান্ড স্যাংকশনস মনিটরিং টিমের এই রিপোর্ট অনুযায়ী, কেরল ও কর্নাটকে ১৫০-২০০ জঙ্গি বিভিন্ন এলাকায় লুকিয়ে নাম গোপন করে রয়েছে। যুব সম্প্রদায়কেই ব্যবহার করার ছক জঙ্গি সংগঠনগুলির নেতাদের।

দক্ষিণ ভারতের এই দুই রাজ্যে লুকিয়ে থাকা জঙ্গিরাও কমবয়সী বলেই জানা গিয়েছে। লুকিয়ে থাকা এই যুবকদের অধিকাংশই পাকিস্তান, বাংলাদেশ এবং মায়ানামারের নাগরিক। তাদের অনেকে আবার ভারতীয়ও।

কাশ্মীরে নিরাপত্তাবাহিনীর কড়াকড়ি বেড়ে যাওয়ার জেরেই জঙ্গিরা এখন দেশের নানা রাজ্যে ছড়িয়ে পড়ার চেষ্টা করছে বলে মনে করছেন গোয়েন্দারা।

দক্ষিণ ভারতের কেরল ও কর্নাটকেও এই মুহূর্তে ১৫০-২০০ আইএস জঙ্গি বিভিন্ন এলাকায় লুকিয়ে আছে। তবে নিজেদের অস্তিত্ব প্রমাণে দক্ষিণ ভারতের যে কোনও এলাকায় তারা হামলা চালাতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।