মুম্বই: চলতি বছরের প্রথম দিকেই গুঞ্জন শোনা যায় যে ২০২০র শেষের দিকেই বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন এই মুহূর্তে বলিউডের সব চেয়ে চর্চিত জুটি রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভট্ট। তবে গত মার্চ মাস থেকে কোভিড-১৯ এর প্রকোপে সারা দেশ জুড়ে শুরু হয় লকডাউন। আর এই লকডাউনের জেরেই আপাতত স্থগিত রয়েছে রণবীর-আলিয়ার বিয়ের পরিকল্পনা।

সম্প্রতি একটি সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে এই বিষয়টি নিয়ে খোলসা করেন রণবীর। তিনি বলেন যে এই প্যান্ডামিক না এলে এতদিনে তাঁর ভালবাসার মানুষ আলিয়ার সঙ্গে গাঁটছড়া বেধে ফেলতেন তিনি। যদিও এই মুহূর্তে কবে তাঁরা বিয়ে করতে চান, সেই বিষয়ে কিছুই জানাননি তিনি।

তবে তিনি যে খুব তাড়াতাড়ি এই কাজটি সম্পূর্ণ করতে চান সেই বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। আর আলিয়ার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন রণবীর। আলিয়াকে ‘ওভার অ্যাচিভার’ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন যে এই লকডাউনের সময় গিটার থেকে শুরু করে চিত্রনাট্য লিখা, সব কিছুই শিখে ফেলেছেন আলিয়া। আলিয়ার পাশে নিজেকে ‘আন্ডার অ্যাচিভার’ বলেই মনে হয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে লকডাউনে তাঁর সময় কিভাবে কেটেছে সেই বিষয়ে বলতে গিয়ে তিনি জানান যে আলিয়ার মত কোন গিটার বা অন্য কোন বিষয়ের উপর তিনি কোন ক্লাস করেননি। তবে এই লকডাউনের মধ্যেই বাবা ঋষি কাপুরকে হারিয়েছেন তিনি। তাঁদের পরিবারের উপর নেমে আসা এই দুর্যোগ কাটিয়ে উঠে তিনি সিনেমা দেখা ও বই পড়ার দিকেই মনোনিবেশ করেছেন বলেই জানান রনবির।

রনবির- আলিয়ার বিয়ে নিয়ে বিস্তর চর্চা হয়েছে বলিউডের অন্দরে। এই জুটিকে দর্শকেরা আগামীতে অয়ন মুখার্জি পরিচালিত ব্রহ্মাস্ত্র ছবিতে দেখতে পাবেন রণবীর, আলিয়া ছাড়াও এই ছবিতে অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চন, ডিম্পেল কাপাডিয়া, নাগরজুন ও মউনি রায়কে। এছাড়াও এই ছবিতে একটি ক্যামিও রোলে দেখা যাবে বলিউডের বাদশা শাহরুক খানকে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।