নয়াদিল্লি: করোনার সংক্রমণ রুখতে মাস্ক পরার ব্যাপারে বারাবার সতর্ক করে চলেছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে একশ্রেণির মানুষের মধ্যে এখনও মাস্ক পরে বাইরে বেরোনর ব্যাপারে প্রবল অনীহা রয়েছে। এবার তাঁদেরই নিশানা করলেন আইসিএমআর অধিকর্তা বলরাম ভার্গভ। তাঁর কথায়, ‘‘দায়িত্বহীন, কম সতর্ক কিছু লোকজনই ভারতে মহামারীর জন্য দায়ী।’’

করোনার সংক্রমণ রুখতে এখনও যাঁদের মুখে মাস্ক পরতে অনীহা তাঁরা সাবধান হোন। প্রয়োজনে এব্যাপারে আরও কঠোর কোনও সিদ্ধান্তও নিতে পারে কেন্দ্রীয় সরকার। মঙ্গলবার আইসিএমআর অধিকর্তা বলরাম ভার্গভ বাইরে বেরোলে মাস্ক না পরা লোকজনদের কড়া ভাষায় আক্রমণ শানালেন। তাঁর স্পষ্ট কথা, ‘‘দায়িত্বহীন ও কম সতর্ক কিছু লোকজনই ভারতে মহামারীর জন্য দায়ী।’’

করোনার গ্রাসে গোটা বিশ্ব। ভারতেও করোনার ব্যাপক প্রভাব। রাজ্যে-রাজ্যে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। প্রতিদিন ৬০ হাজার-৭০ হাজার মানুষ নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। পাল্লা দিয়ে বাড়ছএ মৃত্যুও। করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে বারবার প্রত্যেককে বাড়ির বাইরে পা রাখার সময় মাস্ক পরতে বলছেন বিশেষজ্ঞরা। সংক্রমণ ছড়িয়ে পরা রুখতে এই ব্যবস্থা অত্যন্ত জরুরি বলে প্রতিনিয়ত প্রচার চালাচ্ছে কেন্দ্র-রাজ্য সরকার।

তবুও দেশবাসীর একাংশের মানুষের মাস্ক পরতে প্রবল অনীহা। একাধিক রাজ্যে মাস্ক ছাড়াই রাস্তায় বেরোতে দেখা যাচ্ছে বহু মানুষকে। তাঁদেরই কেউ করোনা সংক্রমিত হলে হু-হু করে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ছে বাকিদের মধ্যেও।

এমনই কম সতর্ক ও দায়িত্বজ্ঞানহীন কিছু মানুষের জন্যই দেশে করোনা মহামারীর আকার নিয়েছে বলে মনে করছেন আইসিএমআর অধিকর্তা বলরাম ভার্গভ। করোনাকে কাবু করতে বিশ্বের একাধিক দেশ ভ্যাকসিন তৈরি করছে। ইতিমধ্যেই করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের ঘোষণা করেছে রাশিয়া।

যদিও রাশিয়ার সেই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। করেনাার ভ্যাকসিন তৈরিতে পিছিয়ে নেই ভারতও। ভারতে তিনটি করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে গবেষণা চলছে। আইসিএমআর অধিকর্তা বলরাম ভার্গভ জানিয়েছেন, ভারত বায়োটেক এবং জাইডাস ক্যাডিলার ভ্যাকসিনগুলি প্রথম পর্বের ট্রায়াল শেষ করেছে।

স্বামীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বস্ত্র ব্যবসাকে অন্যমাত্রা দিয়েছেন।'প্রশ্ন অনেকে'-এ মুখোমুখি দশভূজা স্বর্ণালী কাঞ্জিলাল I