তেহরান: রুশ প্রযুক্তির সাহায্যে তৈরি বিশেষ টর্পেডো ছুঁড়ে নিজেদের শক্তি জাহির করল ইরান৷ ঘণ্টায় ২৫০ কিলোমিটার গতির এই টর্পেডো তৈরি করতে সক্ষম হয়েছে ইরান যা কিনা খুবই চিন্তার বিষয়। এমনই মনে করছে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা৷ পারস্য উপসাগরে ইরানের অত্যাধুনিক টর্পেডো পরীক্ষায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ওয়াশিংটন৷

তবে পারস্য উপসাগরের বুকে অন্যতম স্ট্র্যাটেজিক পয়েন্ট হরমুজ প্রণালীতে নিজের জলসীমার মধ্যেই এই টর্পেডো চার্জ করেছে ইরান৷ এক্ষেত্রে কোনওরকম আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেনি তেহরান৷ এমনই জানিয়েছেন মার্কিন প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা৷

এদিকে ইরানের দাবি, হরমুজ প্রণালী সংলগ্ন অঞ্চলে মার্কিন নৌ সেনার উপস্থিতি চিন্তার কারণ৷ ইসলাম প্রজাতন্ত্র ইরান বিভিন্ন সময়ে শত্রুর হুমকির মধ্যে পড়ে৷ তাই বিশেষ নৌসেনা অভিযান হচ্ছে৷

এমন এক সময়ে এই দ্রুততম টর্পেডো অনুশীলন করল ইরান যখন আমেরিকা ও ব্রিটেনের তরফে বারবার তেহরান বিরোধী বার্তা দেওয়া হয়েছে৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতেই সঙ্গে তেহরান-ওয়াশিংটন কূটনৈতিক সম্পর্ক আবারও গরম৷

সীমান্ত সংঘর্ষ ঘিরে ইসলামাবাদকে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়েছে তেহরান৷ পাশাপাশি ইয়েমেনের অভ্যন্তরীণ সংকট ঘিরে সৌদি আরব ও আরব দুনিয়ার অন্যান্য দেশগুলির সঙ্গে ইরানের সম্পর্ক বেশ তিক্ত৷ একতরফা আরবকে গুঁড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরান৷

মার্কিন প্রতিবেদনে গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর ইরানের বিশাল বিমান মহড়ার কথা উল্লেখ কর হয়েছে৷ তাতে বলা হয়েছে, ইরানের শক্তি বেড়ে যাওয়া পারস্য উপসাগর, হরমুজ প্রণালী ও ওমান সাগরে আমেরিকার অবাধ চলাফেরা সীমিত হয়ে পড়তে পারে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।