তেহরানঃ আমেরিকা এবং ইরানের মধ্যে উতেজনা রয়েছে। একাধিক ইস্যুতে দুদেশের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এই অবস্থায় সমরাস্ত্র উন্নতিতে আরও জোর দিল তেহরান। ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার জানিয়েছেন, ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন সক্ষমতার দিক দিয়ে বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যের এক নম্বর শক্তিতে পরিণত হয়েছে ইরান। তবে আগামিদিনে এই শক্তি আরও বাড়ানো হবে বলে হুঁশিয়ারি সেনা আধিকারিকের।

রবিবার তেহরানে আইআরজিসি’র একটি সম্মেলনে যোগ দেন আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার। সেখানে দেওয়া এক ভাষণে এমনটাই হুঁশিয়ারি দেন। তিনি আরও জানান, ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা, অত্যাধুনিক রাডার, ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র শক্তির দিক দিয়ে ইরানের চোখধাধানো উন্নতির বিষয়টি বিশ্বের বৃহৎ শক্তিগুলোর নজর এড়ায়নি।

বিশেষ করে আমেরিকার সর্ববৃহৎ ও সর্বাধুনিক গোয়েন্দা ড্রোন গুলি করে ধ্বংস করার ঘটনায় অ্যারোস্পেস খাতে ইরানের শক্তিমত্তা সবার কাছে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ডিভিশনের কমান্ডার দেশ প্রতিরক্ষার স্বার্থে ইরানের প্রতিরক্ষা সক্ষমতা আরও শক্তিশালী করার প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন। অন্যদিকে, জেনারেল হাজিযাদে বলেন, প্রতিরক্ষা সক্ষমতা শক্তিশালী করা সাইকেল চালনায় ভারসাম্য রক্ষা করার মতো বিষয়। যদি সাইকেলের প্যাডেল অনবরত মারা না হয় তাহলে সাইকেলের ভারসাম্য থাকে না এবং এর আরোহী পড়ে যায়।