তেহরান ও পিয়ংইয়ং: পারস্য উপসাগরীয় এলাকায় রাজনৈতিক গরম আবহাওার মাঝে ফের হুঙ্কার উত্তর কোরিয়ার। কোনওভাবেই পরমাণু কর্মসূচিতে মার্কিন সরকারের পক্ষপাতিত্ব বরদাস্ত করা যাবে না। পিয়ংইয়ং এমন সময় এই বার্তা দিল যখন উপসাগরীয় এলাকায় আমেরিকা ঘনিষ্ঠ দক্ষিণ কোরিয়া তাদের রণতরী পাঠানোর কথা বলেছে।

তবে সিওল থেকে বলা হয়েছে তাদের কোনও যুদ্ধ জাহাজ সাম্প্রতিক ইরান-আমেরিকা সংঘাতের মধ্যে অংশ নেবে না। কিন্তু, দক্ষিণ কোরিয়া কেন তাদের রণতরী সেখানে পাঠাচ্ছে তা নিয়েই প্রশ্ন তুলছে ইরান সরকার। আর ইরানের মিত্র দেশ বলে পরিচিত উত্তর কোরিয়া এর মাঝেই পরমাণু কর্মসূচি নিয়ে বার্তা দিল। উত্তর কোরিয়ার তরফে বলা রয়েছে, আমেরিকার বিদ্বেষী নীতি অব্যাহত থাকলে কোরীয় উপদ্বীপকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার স্বপ্ন কোনোদিনও বাস্তবায়িত হবে না।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থার খবর, রাষ্ট্রসংঘে নিযুক্ত উত্তর কোরিয়ার প্রধান কূটনীতিক জো ইয়ং চোল এই হুঁশিয়ারি দেন। কূটনৈতিক মহলের ধারণা, দক্ষিণ কোরিয়ার যুদ্ধ জাহাজ পারস্য উপসাগরে ঘোরাফেরা করার বিষয়টি হাল্কা ভাবে নিচ্ছে না উক্তর কোরিয়া। তবে এই অবস্থানে নিজেদের অবস্থানে অনড় ইরান সরকার। কোনোভাবেই আমেরিকার কড়া চোখ মেনে নেওয়া হবে না বলেই জানানো হয়।মনে করা হচ্ছে উত্তর কোরিয়ার মতো দেশের সঙ্গে সম্পর্কের খাতিরে, কূটনৈতিক বার্তা দিয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ