তেহরান: ছেড়ে দেওয়া হবে না। আগেই জানিয়েছিল ইসলামি প্রজাতান্ত্রিক দেশ ইরান। সেই মতো শুরু হয়েছে পাল্টা অভিযান। আফ্রিকার নিকটস্থ জিব্রাল্টার প্রণালীতে ইরানি জাহাজ আটক করেছিল ব্রিটেন। তারপরেই পারস্য উপসাগরের হরমুজ প্রণালীতে খোদ ব্রিটিশ তেলবাহী ট্যাংকার আটক করল ইরান। এর জেরে পারস্য উপসাগরের জল তোলপাড় করে ফের কূটনৈতিক কালো মেঘের ঘনঘটা।

বিবিসি জানাচ্ছে, ইরানের এই পদক্ষেপে চরম হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ব্রিটেন। ব্রিটিশ বিদেশমন্ত্রী জানান, পারস্য উপসাগর থেকে আটক করা তেলের ট্যাংকার না ছাড়লে ইরানকে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে।
ওই তেল ট্যাংকারটিতে ২৩ জন ক্রু থাকলে ব্রিটিশ বিদেশমন্ত্রীর দাবি, তাদের মধ্যে একজনও ব্রিটিশ নাগরিক নয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে লন্ডন ও তেহরানের মধ্যে কূটনৈতিক প্রক্রিয়ায় চলছে সমাধান সূত্র বের করার চেষ্টা।

পড়ুন: মেক ইন ইন্ডিয়া: ৪৫,০০০ কোটি ব্যয়ে ৬ শক্তিশালী সাবমেরিন বাড়াবে ভারতের…

এর আগে সীমান্ত বরাবর মার্কিন ড্রোনের গতিবিধি রুখতে সেটি গুঁড়িয়ে দেয় ইরানি সেনা। তেহরান থেকে ইরানের সংবাদ সংস্থা ইরনা জানাচ্ছে- আটক করা ব্রিটিশ জাহাজটির নাম স্টেনা ইমপেরো। তাদের গতিবিধি ছিল সন্দেহজনক।

সম্প্রতি পারস্য উপসাগরে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর জাহাজে কমান্ডো অভিযান ঘিরে পরিস্থিতি গরম হয়ে ওঠে। আরব দেশগুলির দাবি, এই হামলা জড়িত ইরান। তারপরেই মার্কিন নৌ বহর উপসাগরের সবথেকে জটিল ও অর্থনৈতিক অঞ্চল হরমুজ প্রণালীর দিকে এগিয়ে যায়।

এর জেরে তেহরান ও ওয়াশিংটন পরস্পরকে হুমকি দিয়ে চলেছে। সেই রেশ ধরে মার্কিন লবির অন্যতম দেশ ব্রিটেনের তেলবাহী জাহাজ আটক করেছে ইরানি নৌ সেনা। ফলে আন্তর্জাতিক মহলে তীব্র চাঞ্চল্য।

পড়ুন: উপকূলরক্ষী বাহিনীর নতুন প্রধান হলেন কে নটরাজন

আল জাজিরা, বিবিসি, জেরুজালেম পোস্টের সংবাদ- পারস্য উপসাগরের হরমুজ প্রণালীতে আন্তর্জাতিক সামুদ্র আইন লঙ্ঘন করায় ওই ট্যাংকারটি আটক করা হয় বলে দাবি করেছে ইরান সরকার।

অন্যদিকে শুক্রবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তরফে ইরানি ড্রোনকে ধংস করার কথা জানানো হয়। ওয়াশিংটনের এই দাবিকে উড়িয়ে দিয়েছে ইরান সরকার। কিন্তু তার পরেই ব্রিটিশ তেলবাহী জাহাজকে আটক করে তারা। ইরান সরকারের হুঁশিয়ারি, একটাও গুলি চালানো হলে বিশ্ব তেলের অর্থনীতি বিপর্যস্ত করা হবে। তার ধাক্কা সামলাতে হবে মার্কিন ও ব্রিটিশ লবির বন্ধু দেশগুলিকে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।