গুয়াহাটি: দাদা আইপিএস অফিসার৷ তারই ভাই কীনা নাম লেখাল জঙ্গি দলে৷ হাতে এ কে ১৪ রাইফেল নিয়ে ২৫ বছরের শামসুল হক মেঙনুরের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর থেকে বাকরুদ্ধহীন হয়ে পড়েছে অসমের মেঙনুর পরিবার৷ পুলিশ মহল থেকে শুরু করে পরিবারের কোনও সদস্যই বিশ্বাস করতে পারছে না এই খবর৷

শামসুল হক নাম লিখিয়েছে জঙ্গি সংগঠন হিজবুল মুজাহিদিনে৷ তার দাদা ইনাম উল মেঙনু ২০১২ সালের অসম-মেঘালয় ক্যাডরের আইপিএস অফিসার৷ বর্তমানে তিনি অসম পুলিশের কমান্ডো ব্যাটলিয়নে আছেন৷
প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, চলতি বছর ২২ মে শামসুল হিজবুল মুজাহিদিনে যোগদান করে৷ ওই দিন থেকেই তার কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না৷ বুরহান ওয়ানির সঙ্গে মিলিয়ে তার কোড নাম রাখা হয় ‘বুরহান সানি’৷

জম্মু কাশ্মীরের শ্রীনগর থেকে দুরে একটি সরকারি কলেজ থেকে ইউনানি মেডিসিন ও সার্জারি নিয়ে পড়াশুনা করছিল৷ শ্রীনগর পুলিশ শামসুলের হিজবুলে যোগদানের খবরের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছে৷ কিন্তু প্রশাসনের তরফ থেকে সরকারি ভাবে কোনও বিবৃতি জারি করা হয়নি৷ এনডিটিভিকে এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, জঙ্গি দলে নাম লেখানোর পর অস্ত্র নিয়ে একটি ছবি সদ্য নিযুক্ত জঙ্গিরা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে৷ শামসুলও তাই করেছে৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।