দেবময় ঘোষ, কলকাতা: প্রাক্তন আইপিএস অফিসার ভারতী ঘোষের বিজেপি-তে যোগদানের সম্ভাবনা প্রায় পাকা হয়ে গিয়েছে৷ লোকসভা ভোটের আগেই ওই আইপিএস অফিসার বিজেপি-তে যোগদান করছেন – সেই সম্ভাবনা উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে৷

রাজ্য বিজেপির অন্দরের যা খবর, ভারতীয় সঙ্গে বিজেপির কথাবার্তা প্রায় চূড়ান্ত৷ জঙ্গলমহলের কোনও একটি লোকসভা কেন্দ্র থেকে থেকে বিজেপির টিকিটে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীকে পরাজিত করতে তৈরি ভারতী৷

বিজেপিতে ভারতী যোগ দেবেন এই জল্পনা নতুন নয়৷ একসময়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘনিষ্ট এই অফিসার ঝাড়গ্রাম পুলিশ জেলার এসপি ছিলেন৷ বলেছিলেন – মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই জঙ্গলমহলের ‘মা৷’ তবে জঙ্গলমহলের মায়ের সঙ্গে সম্পর্ক বেশিদিন মধুর হয়নি ভারতীর৷ মমতার উপর গোঁসা করেই চাকরি থেকে ইস্তফা দেন আইপিএস ভারতী। তখন ২০১৭ সালের ডিসেম্বর৷ এরপর মেদিনীপুর শহর ছেড়ে চলে যান ভারতী৷

পরে অবশ্য সংবাদমাধ্যম ভারতী ঘোষের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারে৷ তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সম্পর্কে একাধিক অভিযোগ করেন৷ তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরেও শোনা যায়, ভারতী নাকি দলের অনেক গোপন খবর জানেন৷ ভারতীর খাছে রয়েছে অনেক প্রমাণপত্র৷ তবে এটা ঠিক তৃণমূলের ঘরের লোক ছিলেন ভারতী৷ গত লোকসভা এবং বিধানসভা নির্বাচনে ভারতীকে অন্য জায়গায় সরিয়ে দেয় নির্বাচন কমিশন৷

কিন্তু ঘরের মেয়ে ভারতীকে কেন দূরে সরিয়ে দিলেন মমতা৷ শোনা যায়, তিনি নাকি বকলমে জঙ্গলমহলে তৃণমূল দলটাকেই চালাচ্ছেলেন৷ তা ভালো চোখে দেখেননি মমতা৷ পরে আরও জানা যায়, তিনি নাকি বিজেপি-তে যোগ দেওয়া মুকুল রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন, তৃণমূলকে চাপে রাখবেন বলে৷ তবে যত দিন গিয়েছে গল্পের সংখ্যা বেড়েছে৷

ভারতী ঘোষের বিরুদ্ধে জোর করে ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়ের অভিযোগও রয়েছে এবং ভারতীর দেহরক্ষী সুজিত মণ্ডলের বিরুদ্ধেও ওই অভিযোগ রয়েছে৷ সুজিতকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ ঝাড়গ্রামের বা পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার হওয়ার আগে ভারতীর পড়াশোনার এবং রাষ্ট্রপুঞ্জের নানা দায়িত্ব সামলানোর চমকপ্রদ রেকর্ড রয়েছে।

নির্বাচনের আগে কেন ভারতী বিজেপিতে যোগ দিতে আসছেন৷ বিজেপি সূত্রের বক্তব্য, ‘‘ভারতীর সঙ্গে যোগাযোগ রাখা হয়েছে৷ কথাবার্তা সদর্থক৷ খুবই সদর্থক৷’’ বুধবার তৃণমূল কংগ্রেসের বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন৷ ৬ নম্বর মুরলীঘর সেন লেন অপেক্ষা করছে ভারতী কবে ওই বাড়িতে আসবেন৷