চণ্ডীগড়: চলতি মাসের শুরুর দিকে পূর্ব লাদাখের সহিংস সংঘর্ষের কারণে ভারত-চিন মধ্যে উত্তেজনা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চিনা দ্রব্য বর্জনের হিরিক উঠেছ৷ আর তাতেই সায় দিয়েছেন কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের সহকারী মালিক নেস ওয়াদিয়া৷ মঙ্গলবার আইপিএলে চিনা পৃষ্ঠপোষকতার সমাপ্তির আহ্বান জানিয়েছেন প্রীতি জিন্টার দলের কো-অর্নার৷

১৫ জুন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চিন সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা শহিদ হন৷ ভারতীয় সেনার পালটা আক্রমণে মারা গিয়েছে ৪৩ জন চিনা সৈন্যও৷ দু’ সপ্তাহ কেটে গেলেও সীমান্তে শান্তি ফেরেনি৷ ফলে চিনা পণ্য বর্জন করার আহ্বান আরও তীব্র হয়েছে।

এই ঘটনা বিসিসিআই-কে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চিনা স্পনসরশিপ পর্যালোচনা করার জন্য একটি বৈঠক আহ্বান জানায় কিন্তু সেই সভা এখনও হয়নি। তবে সোমবার ভারত সরকাল ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করেছে।

এর পরই মঙ্গলবার পিটিআই-কে ওয়াদিয়া জানিয়েছেন, ‘জাতির স্বার্থে আমাদের এটি করা উচিত (আইপিএলে চিনা স্পনসরদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করা)। দেশ প্রথমে, অর্থ গৌণ। এটি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ, চাইনিজ প্রিমিয়র লিগ নয়৷ এটি উদাহরণ তুলে দেওয়া উচিত৷ আমাদের পথ দেখাতে হবে৷’

তিনিও আরও বলেন, ‘হ্যাঁ প্রথম দিকে স্পনসর খুঁজে পাওয়া মুশকিল হবে৷ তবে আমি নিশ্চিত যে তাদের পর্যাপ্ত ভারতীয় স্পনসররা তাদের প্রতিস্থাপন করতে পারবেন। আমাদের অবশ্যই জাতি ও আমাদের সরকারের প্রতি এবং তাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে আমাদের জন্য নিজের জীবন ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে তাদের প্রতি শ্রদ্ধা থাকতে হবে৷’

চিনা মোবাইল ফোন নির্মাতা VIVO আইপিএল-এর টাইটেল স্পনসর৷ বিসিসিআই-এর সঙ্গে এই চিনা মোবাইল সংস্থার পাঁচ বছরের ৪৪০ চুক্তি রয়েছে৷ ২০২২ সালে এই চুক্তি শেষ হওয়ার কথা৷ টাইটেল স্পনসর ছাড়াও আইপিএলে জড়িত রয়েছে অনান্য চিনা সংস্থা৷ যেমন পেটিএম, সুইগি, ড্রিম-১১৷

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV