প্রথম পর্বে ঘরের মাঠে ২০৫ রান তুলেও শেষরক্ষা হয়নি। ফিরতি পর্বে কলকাতায় এসে নাইটদের বিরুদ্ধে ফের ২০০ রানের গন্ডি পেরোল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স। সৌজন্যে অধিনায়ক কোহলির বিস্ফোরক শতরান ও মইন আলির মারকাটারি ৬৬ রানের ইনিংস। ইডেন গার্ডেন্সে চলতি আইপিএলে দ্বিতীয় জয়ের লক্ষ্যে নাইটদের পাহাড়প্রমাণ ২১৪ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দিল আরসিবি।

টস জিতে শুক্রবার ঘরের মাঠে আরিসিবি’কে ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানান নাইট কাপ্তান দীনেশ কার্তিক। শুরুটা মন্থর হলেও তৃতীয় উইকেটে কোহলি-মইন জুটি এদিন চালকের আসনে বসিয়ে দেয় আরসিবি’কে। তৃতীয় উইকেটে ৯০ রানের পার্টনারশিপে ভর করে বড় রানের লক্ষ্যে এগিয়ে যায় বিরাট অ্যান্ড কোং।

২৮ বলে ৬৬ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে মইন আলি আউট হলেও রোখা যায়নি ব্যাঙ্গালোর দলনায়ককে। চতুর্থ উইকেটে মার্কাস স্টোওনিসকে সঙ্গে নিয়ে আইপিএলের পঞ্চম শতরান পূর্ণ করেন বিরাট। তাঁর ৫৮ বলে ১০০ রানের ইনিংসে ছিল ৯টি চার ও ৪টি ছয়। ৮ বলে ১৭ রানের ইনিংস খেলে আরসিবি’র রান ২০০’র গন্ডি পেরোতে সাহায্য করেন স্টোওনিস।

বল হাতে এদিনের ম্যাচ ভুলতে চাইবেন চায়নাম্যান কুলদীপ যাদব। মইন আলির উইকেট তুলে নিলেও ৪ ওভারে খরচ করলেন ৫৯ রান। তার মধ্যে অন্তম ওভারেই মইন আলি নিলেন ২৭ রান। ৫২ রান দিলেন প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা। সবমিলিয়ে ২১৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা ছুঁয়ে টুর্নামেন্টে টানা চতুর্থ হার এড়াতে পারে কিনা নাইটরা, এখন সেটাই দেখার।

১৯ তম ওভারে আরসিবি’র ঝুলিতে এল ১৯ রান। স্কোর ১৯৭/৩

আরও একটি সফল ওভার আরসিবি’র জন্য। ১৭ ওভারে রাসেল খরচ করলেন ১৯ রান। আরসিবি ১৬৮/৩

২৮ বলে ৬৬ রানের দুরন্ত ইনিংস ইংলিশ অল-রাউন্ডারের। ১৬ ওভার শেষে আরসিবি ১৪৯/৩

আরসিবির তৃতীয় উইকেটের পতন। কুলদীপের অন্তম ওভারে ২৭ রান নিয়ে আউট হলেন মইন আলি

১৫ ওভার শেষে আরসিবির রান ১২২/২

চলতি আইপিএলে তৃতীয় অর্ধশতরান পূর্ণ করলেন আরসিবি অধিনায়ক বিরাট কোহলি

তৃতীয় উইকেটে অর্ধশতরানের পার্টনারশিপ কোহলি-মইনের। ১৪ ওভার শেষে ব্যাঙ্গালোর ১১০/২

তৃতীয় ওভারে নারিন দিলেন ৯ রান। ১৩ ওভার শেষে আরসিবি ৯৮/২

১টি ওভার বাউন্ডারি সহযোগে রাসেলের তৃতীয় ওভারে বিরাট নিলেন ৯ রান। ১১ ওভার শেষে আরসিবি ৭৯/২

৯ ওভার শেষে আরসিবি ৬০/২

ব্যাঙ্গালোরের দ্বিতীয় উইকেটের পতন। রাসেলের ডেলিভারিতে উথাপ্পার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন আকাশদীপ ১৩(১৫)

অষ্টম ওভারে কুলদীপকে আক্রমণে আনেন কার্তিক। জোড়া বাউন্ডারি সহযোগে প্রথম ওভারে চায়নাম্যান খরচ করলেন ১০ রান। ৮ ওভার শেষে আরসিবি ৫৭/১

১টি ওভার বাউন্ডারি ও ১টি বাউন্ডারি সহযোগে ষষ্ঠ ওভারে এল ১২ রান। পাওয়ার প্লে’র শেষে আরসিবি ৪২/১

পঞ্চম ওভারে কেকেআরের ঝুলিতে এল ৪ রান। স্কোর ৩০/১

৪ ওভার শেষে আরসিবি ২৬/১

ব্যাঙ্গালোরের প্রথম উইকেটের পতন। চতুর্থ ওভারে নারিনের বলে রানার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন পার্থিব

৩ ওভার শেষে আরসিবি ১৭/০৷

গার্নিকে সরিয়ে তৃতীয় ওভারে কৃষ্ণাকে আক্রমণে নিয়ে আসেন নাইট অধিনায়ক কার্তিক৷ কিন্তু প্রথম ওভারে ১০ রান দেন তিনি৷

দ্বিতীয় ওভার শেষে আরসিবি ৭/০

বিরাটের বিরুদ্ধে এলবিডব্লিউ-র রিভিউ নাইটদের৷ কিন্তু বল লেগ-স্টাম্পের বাইরে থাকায় আম্পায়ারের নট-আউট সিদ্ধান্ত সিলমোহর৷

প্রথম ওভার শেষে আরসিবি ৩/০৷ দ্বিতীয় ওভারে বল হাতে নারিন৷

ক্রিজে আরসিবি ওপেনার পার্থিব ও বিরাট..৷ নাইটদের হয়ে বোলিং ওপেন করলেন গার্নি৷

ভারতের বিশ্বকাপ জয়ী কোচ এবং আইপিএলে বিরাটদের হেডস্যার গ্যারি কার্স্টেন ইডেন বেল বাজিয়ে ম্যাচ শুরু করেন৷

বিরাটদের বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচ জিতলেও শেষ তিন ম্যাচ হেরে ব্যাকফুটে কার্তিক অ্যান্ড কোং৷ চিপকে চেন্নাই সুপার কিংসের পর ঘরের মাঠে দিল্লি ক্যাপিটালস ও সুপার কিংসের বিরুদ্ধে হার হজম করেছে নাইটরা৷ 

বিরাট শিবিরে অবশ্য দুঃসংবাদ! চোটের জন্য নেই এবি ডি’ভিলিয়ার্স৷ দীর্ঘ ৯ বছর পর ফের আরসিবি জার্সি মাঠে ফিরলেন ডেল স্টেইন৷

টস জিতে ইডেনে বোলিং করছে কেকেআর৷ চেন্নাই ম্যাচের দল অপরিবর্তিত রাখল কলকাতা নাইটরাইডার্স৷ অর্থাৎ অনিশ্চিয়তা কাটিয়ে বিরাটদের বিরুদ্ধে খেলেছেন আন্দ্রে রাসেল৷

চিন্নাস্বামীতে প্রথম সাক্ষাতে বিরাটদের বিরুদ্ধে ২০৫ রান তাড়া করে ম্যাচ জিতেছিল কেকেআর৷

 ইডেনে নাইট-রয়্যাল যুদ্ধ! বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্সের সামনে দীনেশ কার্তিকের নাইটরাইডার্স৷ ৮ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে লিগ তালিকায় ছ’ নম্বরে থেকে ‘লাস্ট বয়’ বিরাটদের বিরুদ্ধে নামল নাইটরা৷ ৮ ম্যাচে মাত্র একটিতে জয় পেয়েছে আরসিবি৷

কেকেআর: ক্রিস লিন, সুনীল নারিন, নীতিশ রানা, রবিন উথাপ্পা, দীনেশ কার্তিক (ক্যাপ্টেন), শুভমন গিল, আন্দ্রে রাসেল, পীষুষ চাওলা, কুলদীপ চাওলা, প্রসিদ্ধ কৃষ্ণা ও হ্যারি গার্নি৷

আরসিবি: পার্থিব প্যাটেল, বিরাট কোহলি (ক্যাপ্টেন), মইন আলি, মার্কাস স্টওনিস, হেনরিখ ক্লাসেন, আকাশদীপ নাথ, পবন নেগি, ডেল স্টেইন, মহম্মদ সিরাজ, যুবেন্দ্র চাহাল ও নভদীপ সাইনি৷