মুম্বই: কলকাতায় প্রথমবার বসছে আইপিএল নিলামের আসর৷ ১৯ ডিসেম্বর শহরের এক পাঁচতারা হোটেলে ক্রিকেটার কেনাবেচা হবে৷ ২০২০ আইপিএল নিলামে উঠতে চলেছেন ৯৭১ জন ক্রিকেটার৷ এর মধ্যে ৭১৩ জন ভারতীয় এবং ২৫৮ জন বিদেশি ক্রিকেটার৷ সোমবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য দিয়েছে বিসিসিআই৷

ত্রয়োদশ আইপিএল নিলামে ৯৭১ জন ক্রিকেটারের মধ্যে ৬৩৪ জন আনক্যাপড প্লেয়ার৷ তবে ৬০ জন ভারতীয় আনক্যাপড ক্রিকেটার রয়েছেন, যারা অন্তত একটি করে আইপিএল ম্যাচ খেলেছে৷ বিদেশি আনক্যাপড প্লেয়ারের সংখ্যাও ৬০৷ আর বিদেশি ক্যাপড ক্রিকেটার হলেন ১৯৬ জন৷ ভারতীয়দের মধ্যে ১৯জন রয়েছেন ক্যাপড প্লেয়ার৷ আর দু’জন হলেন অ্যাসোসিয়েট দেশের৷

বিদেশি প্লেয়ারের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৫৫ জন রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার৷ ৫৪ জন দক্ষিণ আফ্রিকার৷ এছাড়াও শ্রীলঙ্কা থেকে রয়েছেন ৩৯, ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩৪, নিউজিল্যান্ডের ২৪, ইংল্যান্ডের ২২ এবং ১৯ জন রয়েছে আফগানিস্তানের৷ আর বাংলাদেশ থেকে রয়েছেন ৬ জন প্লেয়ার৷ তিনজন জিম্বাবোয়ে এবং একজন মার্কিন ক্রিকেটার৷

ট্রান্সফার উইন্ডোতে এবার ক্রিস লিন ও অল-রাউন্ডার রবিন উথাপ্পাকে ছেড়ে দিয়েছে কলকাতা নাইটরাইডার্স। নিলামে খরচ করার জন্য নাইটের হাতে রয়েছে ৩৫ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। নিলামে ৭ জন ভারতীয় ক্রিকেটার-সহ ৪ জন বিদেশি অর্থাৎ মোট ১১ জনকে নিতে পারবে কেকেআর।

আইপিএল সবচেয়ে সফল দল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হাতে নিলামে ক্রিকেটার কেনাবেচার জন্য রয়েছে মাত্র ১৩ কোটি ৫ লক্ষ টাকা। আর এই টাকার মধ্যে ২ জন বিদেশি-সহ মোট ৭ জন ক্রিকেটার নিতে পারবে নীতা আম্বানির দল। গত বছরের চ্যাম্পিয়ন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ১৮ জন খেলোয়াড়কে রেখে দিলেও বাদ দিয়েছে লাসিথ মালিঙ্গা, যুবরাজ সিংহ-সহ ১২ জন ক্রিকেটারকে।

তিন বারের আইপিএল চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস ২০ ক্রিকেটারকে ধরে রেখেছে। তবে ছেড়ে দিয়েছে ডেভিড উইলি, স্যাম বিলিংস, মোহিত শর্মা-সহ ৬ জন ক্রিকেটারকে। সিএসকে-র হাতে রয়েছে ১৪ কোটি ৬০ লক্ষ টাকা। সর্বাধিক ৫ জন ক্রিকেটার কিনতে পারবে ধোনির দল৷ এর মধ্যে ২ জন বিদেশি।

আর ১২ জন ক্রিকেটার ছেড়ে দিয়েছে বিরাট কোহালির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। যার মধ্যে রয়েছেন ডেল স্টেইন, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মার্কাস স্টোওনিস, শিমরন হেটমায়ার। ১২জন ক্রিকেটার কিনতে পারবে আরসিবি। এর জন্য বিরাটের দলের হাতে রয়েছে ২৭ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা।