আবুধাবি: দর্শকশূন্য নয়, আইপিএলে মাঠ বসে খেলা দেখার সুযোগ পেতে পারেন ক্রিকেটপ্রেমীরা৷ সংযুক্ত আরব আমিরশাহী সরকার অনুমোদন দিলে ইউএই ক্রিকেট বোর্ড দর্শকদের দিয়ে ৩০-৫০ শতাংশ স্টেডিয়াম পূরণ করতে আগ্রহী৷ শুক্রবার ইউএই সচিব মুবাশি উসমানী পিটিআই-কে এমনটাই জানিয়েছেন।

আইপিএলের তারিখ ঘোষণার সময় চেয়ারম্যান ব্রিজেশ প্যাটেল জানিয়েছিলেন ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ৮ নভেম্বর আইপিএলে দর্শকদের ছাড় দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেবে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী সরকার৷ রবিবার আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠকে আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণের পূর্ণাঙ্গ সূচি স্থির হতে পারে৷

উসমানী ফোনে বলেন, ‘একবার আমরা বিসিসিআইয়ের কাছ থেকে (ভারত সরকারের অনুমোদনে) নিশ্চয়তা পেলে আমরা সম্পূর্ণ প্রস্তাব এবং এসওপি নিয়ে আমাদের সরকারের কাছে যাব৷ যা আমাদের ও বিসিসিআই-এর প্রস্তুতি নিতে সাহায্য করবে৷’

মাঠে বসে দর্শকরা খেলা দেখতে পারবেন কিনা, এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, ‘অবশ্যই আমাদের লোকেরা এই মর্যাদাপূর্ণ ইভেন্টটি অনুভব করতে চাই৷ তবে এটি সম্পূর্ণ সরকারের সিদ্ধান্ত৷ এখানে বেশিরভাগ ইভেন্টের জন্য স্টেডিয়ামের ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ দর্শক ঢোকানার অনুমিত পাওয়া যেতে পারে৷ আমরা একই সংখ্যার দিকে তাকিয়ে রয়েছি৷’ তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘আমরা সরকারের অনুমোদনের বিষয়ে আশাবাদী।’

সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে কোভিড -১৯ এর ৬ হাজারে বেশি সক্রিয় কেস রয়েছে৷ মহামারীর সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ২০২০ সালের দুবাই রাগবি সেভেনস ইভেন্টটি নভেম্বরে নির্ধারিত হয়েছিল৷ কিন্তু করোনভাইরাস কারণে ১৯৭০ থেকে চলে আসা এই টুর্নামেন্টটি প্রথমবারের মতো বাতিল করা হয়েছে।

উসমানী আইপিএলের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগের কিছু দেখছেন না৷ তিনি বলেন, ‘সংযুক্ত আরব আমিরশাহী সরকার করোনাভাইরাস দক্ষতার সঙ্গে কমাতে সক্ষম হয়েছে। কিছু নিয়ম এবং প্রোটোকল অনুসরণ আমরা প্রায় একটি সাধারণ জীবনযাপন করছি। আইপিএল হতে এখনও কিছু সময় দেরি রয়েছে৷ আমরা এখনকার চেয়ে আরও ভালো জায়গায় থাকব।’

আইপিএলের জন্য ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড ‘স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর’ অর্থাৎ (এসওপি) তৈরি করে রেখেছে৷ যা শীঘ্রই আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে৷ তা ইউএই ক্রিকেট বোর্ড-কেও পাঠিয়ে দেওয়া হবে৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ