প্রতি বছর গ্রাহকদের জন্য নতুন সিরিজ লঞ্চ করে থাকে অ্যাপল। বিশ্বজুড়ে একাধিক মোবাইল কোম্পানি থাকা সত্ত্বেও এই ব্র্যান্ডের প্রতি মানুষের আকর্ষণ ক্রমেই বেড়েছে। নাগাড়ে প্রতি বছর উন্নত গুনমানের পরিষেবা দেওয়ার কারণেই এই গুরুত্ব তারা পেয়েছে সাধারণ মানুষের তরফে। তবে এবারে জানা গিয়েছে দ্রুত ক্রেতাদের জন্য সামনে আসছে না আই ফোন ১৪ সিরিজ।

 

নতুন সিরিজ বাজারে লঞ্চ করার আগে একাধিকবার পরীক্ষা করে থাকে অ্যাপল। আর সেই পরীক্ষার ফলাফল দেখেই বাজারে কবে নাগাদ নতুন সিরিজ লঞ্চ করা হবে তা নির্ধারণ করেন শীর্ষ স্তরের কর্মীরা। কিছুদিন আগেই লঞ্চ করা হয়েছিল আই ফোন এর নতুন সিরিজ। তা যথেষ্ট আসা জাগিয়েছিল ক্রেতাদের মধ্যে। সেই কারণেই জল্পনা বেড়েছিল আগামী সিরিজ নিয়ে।

তবে এক বিশেষজ্ঞের তরফে জানা গিয়েছে নয়া তথ্য। আগামী সিরিজ অর্থাৎ আই ফোন ১৪ তে থাকবে নতুন ফিচার। এছাড়াও অনুমান করা হচ্ছে এই ফোনে থাকবে 120 hz promotion display। এছাড়াও জানা গিয়েছে ২০২২ সালের জন্য প্রস্তুত করা হছে iphone se 5g মডেল। প্রতি বছরেই নতুন আই ফোন লঞ্চের আগে সামনে আসে একাধিক তথ্য। তবে এই বিষয়টি নিয়ে গুরুত্ব দিচ্ছেন একাধিক টেক বিশেষজ্ঞরাও।

অনুমান করা হচ্ছে আগামীতে হয়তো অ্যাপল তাদের সব সিরিজেই নিয়ে আসবে hole punch display। তবে ইতিমধ্যে ক্রেতাদের কাছে আকর্ষণের বিষয় হয়ে উঠেছে আই ফোন ১৩ pro মডেল । কিন্তু তার মধ্যেই এই বিষয়টি সামনে আসার ফলে মনে করা হচ্ছে সুবিধা হবে আমজনতার। নির্দিষ্ট সংখ্যক মোবাইল ব্যব্যহারকারীর কাছে অ্যাপল একমাত্র ব্র্যান্ড।

সেই সকল ক্রেতাদের কাছে এই বিষয়টি যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ হবে বলে মনে করা হচ্ছে। এছাড়াও সামনে এসেছে এক নয়া তথ্য আই ফোন ১৪ তে থাকতে পারে আপগ্রেড মডেলের সেলফি ক্যামেরা। তবে ফোন লঞ্চ না হওয়া পর্যন্ত এই সকল তথ্যর সত্যতা নিয়ে থাকছে প্রশ্ন। পাশপাশি ৫জি প্রযুক্তিকে আরও ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য তাদের তরফে iphone se 3 , iphone se মডেল ৫ জি প্রযুক্তির সঙ্গে নিয়ে আসা হবে বলেও জানা গিয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।