স্টাফ রিপোর্টার,কলকাতা: মেয়র সব্যসাচী দত্তের ওয়ার্ডে পালিত হল হোলি প্রীতি সম্মেলন৷ সেখানে ডাক পাননি তিনি৷ আমন্ত্রণ পত্রে নাম নেই স্থানীয় কাউন্সিলর তথা মেয়র সব্যসাচীর৷ তাই দমকলমন্ত্রী সুজিত বসুর ওই উৎসবে দেখা গেল না তাকে৷ তবে উৎসবে যোগ দিয়ে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বললেন,সব্যসাচীর আজ আসা উচিত ছিল৷

রবিবার বিধাননগর পুরসভার ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের বিএফ পার্কে পালিত হল হোলি প্রীতি সম্মেলন৷ ঘটনাচক্রে ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হলেন সব্যসাচী দত্ত৷ তাকে বাদ দিয়েই হল এদিনের অনুষ্ঠান৷ তবে হাজির ছিলেন অনেক মন্ত্রীই৷ এদের মধ্যে খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক নাম না করে সব্যসাচীর উদ্যেশ্য বলেন, দল করলে দলের সঙ্গে থাকতে হবে৷ মনটা দলে রাখতে হবে৷ বাইরে রাখলে চলবে না৷ এছাড়া বলেন, সব্যসাচীর আজ আসা উচিত ছিল৷ হয়ত ব্যস্ততার মধ্যে আসতে পারেনি৷

যাকে নিয়ে এত বিতর্ক সেই সব্যসাচী দত্তকে নিয়ে আবার কলকাতার মেয়র যা বললেন তাতে বিতর্ক আরও উস্কে দিলেন৷ তিনি জানান, আমার মেয়ের বিয়েতে আমি কাকে ডাকব,এটা আমার নিজস্ব৷ আজকের অনুষ্ঠানটা ডেকেছে সুজিত বসু এলাকার বিধায়ক হয়ে৷ সব্যসাচী রাজারহাটের বিধায়ক৷ বিধাননগরের বিধায়কের নাম সুজিত বসু৷ এদিন অবশ্য সব্যসাচীকে নিয়ে কোনও মন্তব্য করলেন না আয়োজক সুজিত বসু৷

উল্লেখ্য, চলতি মাসের হোলির দিন ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে মারোয়ারীদের অনুষ্ঠানে গিয়ে সব্যসাচী ‘ভারত মাতা কি জয়’ স্লোগান দিয়েছিলেন। এই দেশাত্মবোধক স্লোগানের ব্যবহার এখন বিজেপির একচেটিয়া। আরও বলেছিলেন, ‘আমি মেয়র, বিধায়ক যদি নাও থাকি, আপনাদের ঘরের ছেলে হয়ে থাকতে চাই।’ যা নিয়ে প্রবল বিতর্ক তৈরি হয় তৃণমূলে।