নয়াদিল্লি : অনেক বিনিয়োগকারীই নিজের কষ্টার্জিত উপার্জনে ঝুঁকি নিতে চান না। তাঁদের জন্য রয়েছে পোস্ট অফিসের দারুণ কিছু স্কিম। বিনিয়োগ বিশেষজ্ঞরা ঝুঁকি হীন স্কিম হিসেবে পোস্ট অফিসের কয়েকটি প্রকল্পের পরামর্শ দেন।

এরমধ্যে যেমন রয়েছে সিনিয়র সিটিজেন স্কিম, তেমনই রয়েছে বিভিন্ন এফডি প্রকল্প।তবে এবার যে প্রকল্পের কথা জানবেন, তা বেশ লাভজনক। এটি পোস্ট অফিস রেকারিং ডিপোজিট স্কিম। মাত্র ১০০ টাকা বিনিয়োগ করেও এই প্রকল্পে লাভ পেতে পারেন।

যদিও রেকারিং ডিপোজিটে বিনিয়োগ করার কোনও সর্বোচ্চ সীমা নেই। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন যদি মাসে ১০ হাজার টাকা করে বিনিয়োগ করা যায়, তবে ১০ বছর পরে ১৬ লক্ষ টাকা পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

১৬.২৮ লক্ষ টাকা ফেরত পাওয়া যাবে বলে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন। পোস্ট অফিসে একটি রেকারিং ডিপোজিট পাঁচ বছরের জন্য খুলতে পারা যায়। বার্ষিক সুদের হার ৫.৮ শতাংশ।

ইন্ডিয়া পোস্ট অফিস ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী প্রতি ত্রৈমাসিকে সুদের হার বদলাতে পারে। যেসব গ্রাহকদের বার্ষিক আয় আয়করের আওতায় পড়ছে না, তাঁরা এই প্রকল্পে টাকা রাখতে পারেন।

তবে প্রত্যেক মাসে এই প্রকল্প টাকা রাখতেই হবে। নয়তো পরে প্রতি মাসে ক্ষতিপূরণ দিতে হতে পারে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।