নয়াদিল্লি: অবশেষে ধর্মগুরু নিত্যানন্দের বিরুদ্ধে ব্লু কর্নার নোটিশ জারি করল ইন্টারপোল। জানা গিয়েছে গুজরাত পুলিশের আবেদনের ভিত্তিতেই তারা এই পদক্ষেপ নিয়েছে। একাধিক ধর্ষণ এবং শ্লীলতাহানির মামলাতে অভিযুক্ত এই ধর্মগুরু। আর সেই কারণেই তার বিরুদ্ধে এ হেন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আগেও গুজরাত পুলিশের তরফে ইন্টারপোলের কাছে আবেদন করা হয়েছিল নিত্যানন্দকে খোঁজার ব্যাপারে। এছাড়াও ইকুয়েডর প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল তিনি সেখানে নেই।

অপহরণের মামলাতে যুক্ত থাকার কারণে গুজরাত পুলিশের নজরে এসেছিল এই গুরু। এর আগে ২০১০ সালে একটি ধর্ষণের মামলাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। একাধিক মামলাতে অভিযুক্ত হয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যে গত ডিসেম্বরে তার পাসপোর্ট বাতিল করেছিল ভারত সরকার।

আপাতভাবে জানা গিয়েছে, তিনি নিজের তৈরি দেশে রয়েছেন। ইকুয়েডরের কাছে একটি দ্বীপ কিনে তাতে নিজের দেশ বানিয়েছেন এই ধর্মগুরু। অন্যান্য দেশের মত সেখানে পরিষেবা দেবেন বলেও জানিয়েছেন নিত্যানন্দ। এছাড়াও তিনি তার দেশে এক প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ করতে চান বলেও জানা গিয়েছে। তিনি দাবি করেছেন, তার দেশে বিনামূল্যে শিক্ষার ব্যবস্থা করা হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.