নয়াদিল্লি: নামার আগেই উধাও হয়ে যাওয়া ল্যান্ডার বিক্রম। তার সঙ্গে আর কোনও যোগাযোগ করা যায়নি। দু’দিন পর অরবিটারে তার ছবি ধরা পড়েছে। কিন্তু কি অবস্থায় আছে সেই বিক্রম, সেটাই ভাবাচ্ছে বিজ্ঞানীদের। বাইরে থেকে ঠিক থাকলেও হতে পারে ভিতরের অবস্থা খুব একটা ভালো নয়।

এই নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন প্রাক্তন বিজ্ঞানী পিকে ঘোষ। তিনি বলেন, ‘বিক্রমকে দেখা গিয়েছে এটা অত্যন্ত ভাল খবর। কিন্তু, এটা জানা সবথেকে বেশি প্রয়োজন যে এটির অবস্থা ভালো আছে কিনা। তিনি বলেন, ‘বাইরে থেকে ঠিক আছে বলে মনে করা হচ্ছে। কিন্তু ভিতরের অবস্থাটা কেমন, সেটা জানা খুব দরকার।’ তাছাড়া কি ধরনের ল্যান্ডিং হয়েছে, সেটা জানাও জরুরি বলে মনে করেন তিনি।

পি কে ঘোষ বলেন, যোগাযোগ হারিয়ে যাওয়ার পর আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্সের সাহায্যে বিক্রম ল্যান্ডিং করেছে। কিন্তু হার্ড ল্যান্ডিং করে তার অবস্থাটা ঠিক কী হয়েছে, সেটা জান যায়নি।

সোমবার একটি রিপোর্টে বলা হয়, ‘অরবিটারের ছবিতে দেখা যাচ্ছে পরিকল্পনা মতই চাঁদের মাটিতে নেমেছে বিক্রম। ল্যান্ডারটি অক্ষত আছে, ভাঙেনি। তবে একটু বেঁকে রয়েছে।’ যোগাযোগ নতুন করে তৈরি করা যায় কিনা, সেব্যাপারে প্রচেষ্টা চলছে বলেও জানা যায়। তবে সেই দাবি পরে অস্বীকার করে ইসরো। বিক্রমের ছবি দেখা গেলেও তা অক্ষত আছে কিনা এখনও জানা যায়নি।

ইসরোর টেলিমেট্রি, ট্র্যাকিং ও কমান্ড নেটওয়ার্কের টিম সমানে সেই কাজ করে চলেছে। ল্যান্ডার ও রোভারের আয়ু ১৪ দিন, তাই তার মধ্যেই যোগাযোগ তৈরি করতে হবে।

যদি পুরো সিস্টেমটা কাজ করে, তাহলেই আবার যোগাযোগ করা সম্ভব হবে। তবে এখনই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না বিজ্ঞানীরা। চলছে লাগাতার লড়াই। বিক্রমের অ্যান্টেনা গ্রাউন্ড স্টেশনের দিকে কিংবা অরবিটারের দিকে মুখ করে রাখতে হবে, তবেই যোগাযোগ সম্ভব। আর সেটা এই মুহূর্তে বেশ কঠিন বলে মনে করা হচ্ছে।