নয়াদিল্লি: ফের গোয়েন্দাদের জালে ধরা পড়ল আন্তর্জাতিক ড্রাগ পাচার চক্রের কারবারিরা। শুক্রবার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো ড্রাগ পাচারের সঙ্গে যুক্ত নয় জনকে গ্রেফতার করে। এবং প্রায় ১,৩০০ কোটি টাকার মাদকদ্রব্য আটক করে একটি আন্তর্জাতিক ড্রাগস কার্টেল ফাঁস করে। শুক্রবার অ্যান্টি ড্রাগ এজেন্সির তরফে এই খবর জানা গিয়েছে।

এই ঘটনায় যে ৯ জন পাচারকারিকে গ্রেফতার করা হয়েছে,তাদের মধ্যে পাঁচজন ভারতের নাগরিক। এবং একজন আমেরিকার, আরেক জন ইন্দোনেশিয়ার এছাড়াও দুই জন নাইজেরিয়ানকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।

সূত্রের খবর, গোটা দেশের মধ্যে রাজধানী শহর দিল্লি থেকে সব থেকে বেশি পরিমানের কোকেন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে শুক্রবার। এনবিসি’র তরফে জানানো হয়েছে, বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে প্রায় ২০ কেজি কোকেন। এবং গ্রেফতার করা হয়েছে ৯ জন আন্তর্জাতিক পাচারকারিকে। তাদের এই ড্রাগ সিন্ডিকেট দলটি রাজধানী দিল্লি সহ, পঞ্জাব, উত্তরাখণ্ড, মহারাষ্ট্রতেও ছড়িয়ে রয়েছে। শুধু তাই নয় এই সিন্ডিকেট টিমের মাধ্যমে গোটা বিশ্বে অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলঙ্কা, কলম্বিয়া, মালয়েশিয়া এবং নাইজেরিয়ার সঙ্গেও এই পাচার চক্রের কাজ চলত বলে জানা গিয়েছে।

পাচারকারীরা জানিয়েছে, কোকেন সিন্ডিকেটের ব্যবসায় তারা ভারতকেই গন্তব্য হিসাবে বেছে নিয়েছিল। এখান থেকেই বিভিন্ন দেশে ড্রাগ পাচারের কারবার চালাত তারা। এই অভিযানের সময় অস্ট্রেলিয়ায় পাচার হওয়া ৫৫ কেজি কোকেইন এবং ২০০ কেজি মেথামফেটামিনের উত্সও আবিষ্কার করেছে এনসিবি।

এদিকে এনসিবির তরফে জানা গিয়েছে, বাজেয়াপ্ত হওয়া মাদক গুলির আন্তর্জাতিক বাজার মূল্য প্রায় ১০০ কোটি। এবং ড্রাগ কারটেলার গুলির মূল্য প্রায় ১.৩০০ কোটি টাকা।