অরুণাভ রাহারায়, কলকাতা: মঙ্গলবার বিকেলে প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত হল তৃণমূলপন্থী বুদ্ধিজীবীদের প্রতিবাদ সভা। সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তিকে রুখতেই এই সভার আয়োজন করা হয়। কিছুদিন আগে এই একই বিষয়ে অন্য আরেকটি সভায় বেশ কয়েকজন বিদ্বজনকে উপস্থিত থাকতে দেখা গিয়েছিল শান্তিনিকেতনে। এ যেন তারই পুনরাবৃত্তি কলকাতায়।

মঙ্গলবার প্রেসক্লাবে মূলত বিজেপিকে নিশানা করলেন বাংলার বুদ্ধিজীবীরা। উপস্থিত ছিলেন জয় গোস্বামী, সুবোধ সরকার, আবুল বাশার, শুভাপ্রসন্ন, কবীর সুমন, নলিনী বেরা, নৃসিংহপ্রসাদ ভাদুড়ী, শাঁওলী মিত্র, অভিরূপ সরকার, অরিন্দম শীল প্রমুখ।

সুবোধ সরকার বলেন, “ভারতবর্ষ নরেন্দ্র মোদীকে চায় না। ভারতের ডেঙ্গু আর ম্যালেরিয়ার নাম নরেন্দ্র মোদী আর অমিত শাহ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় এলে ভারতবর্ষ ডেঙ্গু-ম্যালেরিয়া মুক্ত হবে।” কবীর সুমন বলেন, “আমি তৃণমূলপন্থী নই। তবে মনে করি যেভাবেই হোক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জেতা দরকার। তিনি কাজ করতে জানেন। টাকা খরচ করতে জানেন। কলকাতায় মুসলমানদের বাড়ি ভাড়া দেওয়া হয় না। এটা লজ্জার।”

এভাবেই প্রেসক্লাবে একের পর এক বোমা ফাটান বুদ্ধিজীবীরা। নৃসিংহপ্রসাদ ভাদুড়ীর কথায় “জয় শ্রীরাম ধ্বনি এখন আতঙ্কে পরিণত হয়েছে। আগেকার দিনের ডাকাতরা জয় কালী বলে ডাকাতি করত এবং মানুষ খুন করত। এখন জয় শ্রীরাম ধ্বনি সেই দিকে গিয়েছে।” আজকের সভার সঞ্চালনায় ছিলেন চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন তিনি অমিত শাহকে আক্রমণ করে বলেন বাঙ্গালীরা কাঙাল হতে পারে না।