নয়াদিল্লি: রাজীব গান্ধীকে নিয়ে বিতর্ক থামার নয়৷ বরং প্রতিদিন তা বেড়েই চলেছে৷ মৃত্যুর ২৮ বছর পর প্রয়াত প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বিজেপি শিবিরের নানা অভিযোগ এই বিতর্কে নতুন মাত্রা যোগ করেই চলেছে৷

প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে নিয়ে আক্রমণ জারি বিজেপির৷ বৃহস্পতিবার পদ্ম শিবির থেকে বিস্ফোরক অভিযোগ তোলা হয়৷ বিজেপির অভিযোগ, ইন্দিরার মৃত্যুর বদলা নিতে শিখদের নির্বিচারে খুন করার নির্দেশ সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে এসেছিল৷

নানাবতী কমিশনের রিপোর্টকে হাতিয়ার করেছে বিজেপি৷ দলের অফিসিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেলে বিজেপি একটি ট্যুইট করে৷ লেখে, ৮৪’র শিখ গণহত্যা এমন ঘটনা যেখানে সরকার দেশের নাগরিকদের খুন করে৷ সবচেয়ে বড় এই গণহত্যার তদন্ত করে নানাবতী কমিশন৷ সেখানে পরিস্কার বলা হয়েছে, শিখদের হত্যার নির্দেশ সরাসরি এসেছিল তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর অফিস থেকে৷

এদিকে এদিনই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর মৃত্যুর জন্য বিজেপিকে দায়ী করেন কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেল৷ তাঁর বিস্ফোরক মন্তব্য, বিজেপি সমর্থিত ভিপি সিংয়ের সরকার রাজীব গান্ধীকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেয়নি৷ বিজেপির প্রবল বিদ্বেষের কারণে প্রাণ হারান তিনি৷

সকালে একটি ট্যুইট করে কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ আহমেদ প্যাটেল৷ লেখেন, গোয়েন্দা সংস্থা থেকে রাজীবের প্রাণনাশের আশঙ্কা করা হয়েছিল৷ বারবার বলা স্বত্ত্বেও তাঁর নিরাপত্তা বাড়ায়নি বিজেপি সমর্থিত ভিপি সিংয়ের সরকার৷ বিজেপির ঘৃণা ও বিদ্বেষের বলি হন রাজীব৷ তাঁর বিরুদ্ধে যে ভিত্তিহীন অভিযোগ এখন উঠছে তার জবাব দেওয়ার জন্য আজ তিনি উপস্থিত নেই৷

উত্তরপ্রদেশের এক জনসভায় তাঁকে ভ্রষ্টাচার নম্বর ওয়ান বলে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি করেছিলেন মোদী৷ প্রধানমন্ত্রীর সেই মন্তব্যের তীব্র বিরোধীতা করে কংগ্রেস৷ সেই বির্তকের মাঝে আবার প্রয়াত প্রধানমন্ত্রীকে টার্গেট করেন নমো৷ এবার জানান, ভারতীয় নৌসেনাকে অপমান করে গান্ধী পরিবার আইএনএস বিরাটে ১০ দিনের ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন৷ এভাবেই ক্ষমতার অপব্যবহার করত গান্ধী পরিবার বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রী৷