ওয়াশিংটন: আমেরিকার সঙ্গে শুল্ক-যুদ্ধ চলছে চিনের অর্থনীতি। ফলে বহু বিদেশি সংস্থাই ব্যবসায় ক্ষতির মুখে পড়ছে। পরিস্থিতি বিচার করে চিনের বদলে অন্য দেশকে উৎপাদনের স্থান এবং বাজার হিসেবে কাজে লাগাতে চাইছে। বেশ কিছু দিন ধরে মোদী সরকার ওই সংস্থাগুলিকেই আকৃষ্ট করা চেষ্টা চালাচ্ছে ।

এবার ওয়াশিংটনে আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডার (আইএমএফ) এবং বিশ্ব ব্যাংকের বার্ষিক সভায় ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন আরও স্পষ্ট ভাবে লগ্নির আহ্বান জানালেন। যদিও নির্মলার বক্তব্য, তাঁর উদ্দেশ্য শুধু শুল্ক-যুদ্ধকে কাজে লাগিয়ে চিনে ব্যবসা করা সংস্থাগুলিকে এখানে সরিয়ে আনা । কারণ কোনও সংস্থার দেশ ছাড়ার ক্ষেত্রে অনেক কারণ থাকতে পারে।

গত বেশ কয়েকটি ত্রৈমাসিকে ভারতীয় অর্থনীতির গতি শ্লথ হয়েছে। পাশাপাশি চাহিদা কমায় বেসরকারি লগ্নিরও দেখা মিলছে না। এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠতে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপ ঘোষণা করেছে কেন্দ্র। এক ধাক্কায় কর্পোরেট কর কমানোর পথে হাঁটতে হয়েছে। এবার আন্তর্জাতিক মঞ্চেও বিদেশি সংস্থাগুলিকে বিভিন্ন সুবিধার বার্তাই দিতে চেয়েছেন তিনি। চিনের বদলে ভারতে লগ্নিতে আগ্রহী সংস্থাগুলির জন্য একটি নীল নকশা তৈরি করবেন বলে তিনি জানান। নির্মলার বক্তব্য, চিনের পাশাপাশি সেক্ষেত্রে ইউরোপীয় বা ব্রিটিশ সংস্থাও হতে পারে। ওই সব সংস্থাকে বোঝান হবে ভারত কেন লগ্নির আদর্শ।

নির্মলা উল্লেখ করেন, আইএমএফের রিপোর্ট অনুসারে চলতি এবং আগামী অর্থবর্ষেও ভারত বৃদ্ধির হারে প্রথম সারিতেই থাকবে। সারা বিশ্বের আর্থিক বৃদ্ধিতে বৃহৎ অর্থনীতিগুলির মধ্যে ভারতের অবদানই জোড়াল হবে।