স্টাফ রিপোর্টার, হলদিয়া: পরীক্ষা শুরু হতে আর কিছুক্ষণ৷ কিন্তু বাড়ি থেকে বেরোতে দেরি হয়ে গিয়েছিল ছাত্রের৷ তাই এক প্রতিবেশীর বাইকে করে পরীক্ষাকেন্দ্রে যাবে বলে ঠিক করে৷ আর এটাই কাল হল ওই পরীক্ষার্থীর৷ পথে যেতে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে আজগর আলি৷ ভেবেছিল পরীক্ষা হয়ত আর দেওয়া হবে না৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত শিক্ষকদের প্রচেষ্টায় সে পরীক্ষা দিতে সফল হয়৷ ঘটনাটি পূর্ব মেদিনীপুরের রামনগর রেলক্রসিং এলাকায়৷

জানা গিয়েছে, ওই ছাত্রের বাড়ি সুতাহাটা থানার মাধবপুর গ্রামে৷ জয়নগর হাই স্কুলের ছাত্র সে৷ তার পরীক্ষাকেন্দ্র পড়েছে হলদিয়া গভর্নমেন্টের স্পন্সর হাই স্কুলে। মঙ্গলবার ছিল ইতিহাস পরীক্ষা। বাড়ি থেকে বেরোতে দেরি হয়ে গিয়েছিল। তাই প্রতিবেশীর বাইকে করে পরীক্ষা কেন্দ্রে যাচ্ছিল। পথে রামনগর রেলক্রসিং এর কাছে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাইকটি উলটে যায়৷ রাস্তায় ছিটকে পড়ে চালক সহ আজগর।

স্থানীয়রা সঙ্গে সঙ্গে আজগর ও বাইক চালককে উদ্ধার করে হলদিয়া মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ আজগর ভেবেই ছিল তার হয়ত আর পরীক্ষা দেওয়া হবে না৷ এই অবস্থায় পরীক্ষাকেন্দ্রে তার জখম হওয়ার খবর পৌঁছায়৷ তখন পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বে থাকা শিক্ষকরা হাসপাতালেই তার পরীক্ষার ব্যবস্থা করে দেয়৷ তাঁদের চেষ্টায় আহত আজগরের হাসপাতালেই বসে পরীক্ষা দেয়৷ হাসপাতালেই কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে পরীক্ষা দেয় সে। পরীক্ষার শেষে পরিবারের সঙ্গে দেখা করার ব্যবস্থা করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ছাত্রটির পায়ে ও হাতে চোট লেগেছে বলে হাসপাতালের চিকিৎসক জানিয়েছেন৷