লখনউ: ফের এক যাত্রীর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করার অভিযোগ উঠল ইন্ডিগোর বিরুদ্ধে৷ এমনকী তাঁকে বিমান থেকে নামতে বাধ্য করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে সংশ্লিষ্ট এয়ারলাইন্সের বিরুদ্ধে৷ বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলেনি ইন্ডিগো কর্তৃপক্ষ৷ শুধু একটি টুইট করে ঘটনার দায়ভার ওই ব্যক্তির উপর চাপায় তারা৷ সোমবার ঘটনাটি ঘটে লখনউ বিমানবন্দরে৷

আরও পড়ুন: ব্রিটেনে এবার ছেলেরা স্কার্ট পরে স্কুলে যাবে

অভিযোগকারী কোনও সাধারণ ব্যক্তি নন৷ তিনি পেশায় একজন সম্মানীয় হার্ট সার্জন৷ ব্যাঙ্গালুরুর বাসিন্দা ডঃ সৌরভ রাই সোমবার লখনউ থেকে 6E541 ইন্ডিগোর বিমানে ওঠেন৷ বিমানের মধ্যে মশার উৎপাত দেখে বিরক্ত হয়ে ইন্ডিগোর স্টাফদের কাছে অভিযোগ জানান৷

অন্যান্য যাত্রীদের অভিযোগ, ইন্ডিগোর স্টাফরা তাঁর সঙ্গে চূড়ান্ত বাজে ব্যবহার করে৷ ডঃ রাইয়ের তোলা অভিযোগ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার বদলে উল্টে তাঁকেই হেনস্থা করে৷ এবং তাঁকে উড়ান থেকে নেমে যেতে বাধ্য করে৷ ইন্ডিগোর স্টাফরা ডঃ রাইকে ‘পরামর্শ’ দিয়ে বলেন, অন্য বিমানে ব্যাঙ্গালুরু যান৷

আরও পড়ুন: মেয়াদ কমল অ্যাক্সিস ব্যাংকের সিইও-র

হেনস্থার এখানেই শেষ নয়৷ ওই হার্ট সার্জনকে এয়ারপোর্ট লাউঞ্জ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার জন্য কোন বাস বা গাড়ি দেওয়া হয়নি৷ এদিকে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই মুখে কুলুপ এঁটেছে ইন্ডিগো কর্তৃপক্ষ৷ শুধু একটি টুইট করে তারা দাবি করেন, ডঃ রাই তাদের এয়ারলাইন্সের স্টাফদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন৷ অশোভনীয় কথা বলেন এবং হুমকিসুলভ ঢঙে ‘হাইজ্যাক’ ইত্যাদি শব্দের প্রয়োগ করেন৷ এমনকী অন্যান্য যাত্রীদের উত্তেজিত করে বিমানে ভাঙচুর করার জন্য প্রভাবিত করেন৷ সেই কারণে তাঁকে উড়ান থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়৷