নয়াদিল্লি: রেল ব্যবস্থাকে আরও বেশি ইকো-ফ্রেণ্ডলি করার জন্য নতুন উদ্যোগ নিল রেলমন্ত্রক৷ এবার বদলানো হবে পুরনো কাঠের স্লিপারগুলিকে৷ পরিবর্তে আনা হবে কম্পোসাইট স্লিপার৷ যেগুলি হালকা এবং শক্তিশালী৷ রেলমন্ত্রক সংবাদ সংস্থাকে জানাচ্ছে, ২০০৩ সালে প্রথম মুরাদাবাদ ডিভিশনে কম্পোসাইট স্লিপার ব্যবহার করা হয়েছিল৷ শুধু তাই নয়, ২০১৬ সালে ১০ টি অঞ্চলে ব্যবহার করা হয়েছিল এই ধরণের স্লিপার৷ তবে, ব্যবহারের পর থেকে এখনও পর্যন্ত কোন অভিযোগ আসেনি৷

আরও পড়ুন : ভারত-পাক সীমান্তে রাবণ বধ করবেন রাজনাথ
তথ্য জানাচ্ছে, কম্পোসাইট স্লিপারগুলি তৈরিতে ব্যবহার করা হয়েছে স্টিল এবং ফাইবার প্লাস্টিক৷ একটি কম্পোসাইট স্লিপারের দাম ২৫০০০ টাকা৷ অন্যদিকে, চ্যানেল স্লিপারগুলির এক একটির দাম থাকছে ৭০০০ টাকা৷ তবে, কেন এমন উদ্যোগ নিল রেল? প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে এক রেল আধিকারিক জানাচ্ছেন, কাঠের স্লিপার তৈরিতে কাঠই প্রধান উপাদান৷ আর, প্রয়োজনীয় কাঠের যোগান দিতে প্রচুর গাছ কাটার প্রয়োজন হয়৷ পরিবেশ সচেতনতাকে গুরুত্ব দিয়ে সেজন্যই কাঠের স্লিপারগুলিকে বদলে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলমন্ত্রক৷

আরও পড়ুন : জানেন এই মহিলার হাত ধরেই হয়েছিল #MeToo-র আত্মপ্রকাশ?

সম্প্রতি, একটি অর্ডার পাশ করে সুপ্রিমকোর্ট৷ যেখান থেকেই নড়েচড়ে বসে রেল কর্তৃপক্ষ৷ অর্ডারটিতে গাছ কাটার উপর কঠোর নির্দেশিকা জারি করেছিল শীর্ষ আদালত৷ নয়া উদ্যোগটি সফলতা পেলে, বদলে ফেলা হবে সমস্ত কাঠের স্লিপারগুলিকে৷ ২০১৬ সালে রেলওয়ে বোর্ড এক্সুকিউটিভ ডিরেক্টর একটি চিঠি পাঠান সমস্ত আঞ্চলিক অফিসগুলিতে৷ চিঠির তথ্য জানাচ্ছে, ডিজাইনস অ্যান্ড স্ট্যান্ডার্ড অর্গানাইজেশন (আরডিএসও) সমস্ত কাঠের স্লিপারগুলিকে কম্পোসাইট স্লিপার দিয়ে বদলের পরিকল্পনা করছে৷