নয়াদিল্লি : উৎসবের মরশুমে বড়সড় ঘোষণা রেলের। দশেরার পর এবার পালা দীপাবলী ও ছটপুজোর। সেই দিওয়ালি ও ছটপুজো উপলক্ষ্যে বিশেষ ট্রেন চালাবে ভারতীয় রেল। উৎসবের আমেজ ধরে রাখতেই এই সিদ্ধান্ত। ভারতীয় রেলমন্ত্রক এক ট্যুইটবার্তার মাধ্যমে এই তথ্য জানিয়েছে।

রেল জানিয়েছে ৪৬টি নতুন স্পেশাল ট্রেন চালানো হবে। এই স্পেশাল ট্রেনগুলিতে জায়গা পেতে আগে থেকে আসন সংরক্ষণ করতে হবে। সংরক্ষণ না করলে এই স্পেশাল ট্রেনগুলিতে জায়গা পাওয়া যাবে না।

নর্দার্ণ রেলওয়ে জানিয়েছে দিওয়ালি ও ছট পুজো উপলক্ষ্যে প্রচুর মানুষ বাড়ি ফেরেন। তাঁদের যাতায়াতের সুবিধার জন্যই বিশেষ ট্রেন চালানোর সিদ্ধান্ত বলে খবর।

দিওয়ালি ও ছট পুজোর জন্য টিকিটের চাহিদা ক্রমশ বাড়ছে। এই অতিরিক্ত ভিড় সামাল দিতেই স্পেশাল ট্রেন চালানো হবে। ১৮ই নভেম্বর থেকে ২১শে নভেম্বর পর্যন্ত ট্রেনগুলি চলবে।

১৩ই অক্টোবর রেল মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয় উৎসব উপলক্ষে ২০ অক্টোবর থেকে ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত পর্যন্ত ফেস্টিভ্যাল স্পেশাল ট্রেন চালানো হবে ভারতীয় রেলের তরফে।

আর এর ফলে নিয়ন্ত্রন করা যাবে যাত্রীদের এমনটা মনে করা হচ্ছে। উৎসবের মরসুমে এই সুবিধা দেওয়াতে কিছুটা হলেও স্বস্তিতে সাধারণ মানুষজন।

পাশপাশি এও জানানো হয় ওই সকল ট্রেনের ভাড়া সাধারণের সুবিধা মতই রাখা হবে। এমনটা জানা গিয়েছে রেলের তরফে। ফলে মনে করা হচ্ছে এর উপরে অতিরিক্ত চার্জ বসতে পারে। ফলে এই ট্রেনের টিকিট ১০ থেকে ৩০ শতাংশ দামী হতে পারে মেল ট্রেনের থেকে।

রেল জানায়, বিশেষ পরিষেবা দেওয়ার কারণেই এই সকল ট্রেনের ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে। এই সকল ট্রেনের সুচি দ্রুত জানিয়ে দেওয়া হবে বলেও জানা গিয়েছে। রেল মন্ত্রকের তরফে এই নির্দেশিকা জারি হওয়ার পর থেকেই এও জানানো হয়েছে এই সময়ে সকল ট্রেনের গতিবেগ থাকবে ৫৫ কেএমপিএইচ।

রেলের নির্দিষ্ট জায়গা থেকে এই সকল ট্রেনের বুকিং করা হবে বলেও জানানো হয়েছে। এই সব বিশেষ ট্রেন চলবে কলকাতা, পাটনা, বারানসী, লখনউ থেকে শুরু করে আরও একাধিক শহর থেকে।

দিওয়ালি, ছট পুজো উপলক্ষে গ্রাহকদের জন্য এই সুবিধা আনা হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।