বার্লিন: জার্মানির ফ্র্যাঙ্কফুর্ট বিমানবন্দরে বর্ণবৈষম্যের শিকার হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত এক মহিলা। শ্রুতি বাসাপ্পা নামের ওই মহিলা এদিন বেঙ্গালুরু থেকে আইসল্যান্ডে যাআচ্ছিলেন। তখন বিমানবন্দরে নিরাপত্তা রক্ষীরা তাকে চেকিং করার সময় নগ্ন হতে বলে।

এই সপ্তাহের প্রথম দিকে ঘটনাটি ঘটে। নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে লিখে ঘটনার কথা জানিয়েছেন শ্রুতি। তিনি জানিয়েছেন, “আমরা ভারত থেকে আইসল্যান্ডে যাচ্ছিলাম। সঙ্গে আমার ৪ বছরের মেয়ে ছিল। আমাকে কোন কারণ না দেখিয়েই চেকিং করার জন্য একটি ঘরের ভিতরে নিয়ে আসা হয়। আমি পোশাকের নিচে কিছু বহন করছি কি না সেই ব্যাপারে নিশ্চিত হতে আমাকে জামা কাপড় খুলতে বলা হয়।”

স্ক্যানারের মাধ্যমে পুরো চেকিং করার পরও পোশাক খুলতে বলা হয়েছিল তাকে। এমনই দাবী করেছেন শ্রুতি বাসাপ্পা। কিন্তু পোশাক খুলতে কিছুতেই রাজি হননি শ্রুতি। শ্রুতির স্বামী আইসল্যান্ডিয়। তিনি ওই ঘরে আসার সঙ্গে সঙ্গে তখন শ্রুতিকে নিরাপ্পত্তা রক্ষীরা ছেড়ে দেয়। স্বামীর গায়ের রঙ দেখার পরই তাকে ছেড়ে দেওয়া হয় বলে জানান শ্রুতি।

সম্প্রতি পেটে অস্ত্রোপ্রচার হওয়ায়, শ্রুতি নিরাপত্তা রক্ষীদের সতর্ক হয়ে চেকিং করার অনুরোধ করেছিলেন। শ্রুতি জানান, সেই অনুরোধেও কোনও কান দেয়নি তারা।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প