অমরাবতীঃ   একেই বলে রাজকীয় সংবর্ধনা! ভারতীয় নৌবাহিনীর নজরদারি বিমান টুপোলেভ-১৪২এম’কে রীতিমত রাজকীয় সংবর্ধনায় স্বাগত জানাল অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার।  গত ২৯ মার্চ নৌবাহিনী থেকে অবসর নিয়েছিল নৌবাহিনীর অন্যতম এই গোয়েন্দা বিমান।  এই বিমানকে সামনে রেখেই সংগ্রহশালা তৈরি করতে চায় অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার।  সেজন্যেই মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু নিজে দাঁড়িয়ে থেকে এই সেনার এই বিমানকে স্বাগত জানান।

প্রসঙ্গত, ১৯৮৮ সালে ভারতীয় নৌসেনায় অন্তর্ভুক্তির পর অধিকাংশ অভিযানেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে দূরপাল্লার এই নজরদারি বিমান।  নাম টুপোলেভ-১৪২এম হলেও টিউ-১৪২এম নামেই নৌবাহিনীতে অধিক পরিচিত ছিল এই বিমান।  সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নে তৈরি এই বিমান সাবমেরিনেরও ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল।  তাই আইএনএস দেগা’য় গতকাল শনিবার সকালে যখন শেষবারের মতো অবতরণ করল টিউ-১৪২এম, তাকে এসকর্ট করে নিয়ে আসে তিনটি চেতক হেলিকপ্টার, দু’টি কামোভ হেলিকপ্টার, দু’টি ডর্নিয়ার বিমান এবং একটি পি-৮আই বিমান।  অনুষ্ঠানে উপস্থিতি ছিলেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণমন্ত্রী অশোক গজপতি রাজু, ইস্টার্ন নাভাল কমান্ডের কমান্ডিং ইন চিফ ভাইস অ্যাডমিরাল এইচসিএস বিস্ত প্রত্যেকেই হাজির ছিলেন বহু যুদ্ধের নায়কের পুনর্জন্মে।


জানা যায়, এই বিমানটিকে মিউজিয়াম হিসাবে তৈরি করার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন করেছিল অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার।  সেই আবেদন সাড়া দিয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক।  আপাতত,  এই বিমানটিকে প্রথমে খুলে ফেলে হবে পুরোটা।  তারপর সমস্ত যন্ত্রাংশ ট্রেলারে করে বিচ রোডে আইএনএস কুরসুরা সাবমেরিন মিউজিয়ামের পাশে নিয়ে যাওয়া হবে।  সেখানেই গড়ে তোলা হবে এই নতুন সংগ্রহশালা।