নয়াদিল্লি: ভারতীয় নৌবাহিনী চাকরি কতটা গর্বের তা আমরা প্রায় সকলে জানি। ভারতের প্রায় প্রতিটা মানুষ নৌবাহিনীর উর্দি পরার স্বপ্ন দেখে। কেউ সেই স্বপ্নকে ছুতে পারে, তো কেউ নিরাশ হয়ে ফিরে যায়। তবে সমস্ত প্রতিকূলতা পার করেও যারা নৌবাহিনীতে কাজ করার কথা ভাবে তাদের জন্য রয়েছে সুখবর। ভারতীয় নৌবাহিনী Sailors (AA ও SSR) বিভাগে ২,৫০০ টা পদের জন্য নিয়োগ করতে চলেছে।

ভারতীয় নৌবাহিনী তাদের Sailors (AA ও SSR) বিভাগে জন্য আবেদনের প্রক্রিয়া শুরু করেছিল চলতি বছরের এপ্রিল মাসের ২৬ তারিখে। এই প্রক্রিয়া শেষ করা হতে চলেছে কাল অর্থাৎ ৫ মে। অনলাইন মাধ্যমে আগ্রাহী প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবে উক্ত পদের জন্য। ভারতীয় নৌবাহিনীর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট https://www.joinindiannavy.gov.in ঠিকানায় সমস্ত প্রয়োজনীয় নথি দিয়ে আবেদন করতে হবে প্রার্থীদের। আবেদন পত্রের জন্য জেনারেল এবং ওবিসি প্রার্থীদের ২১৫ টাকা দিতে হলেও এসসি এবং এসটি প্রার্থীদের কোনও মূল্য দিতে হবে না বলেও উল্লেখ করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

ভারতীয় নৌবাহিনীর Sailors (AA ও SSR) বিভাগে ২,৫০০ টা পদে নিয়োগ করা হবে ভারতীয় নাগরিকদের। Sailors for Artificer Apprentice (AA) – ২০২১ এর আগস্ট ব্যাচের জন্য ৫০০ শূন্য পদে নিয়োগ করা হবে। অন্যদিকে     Sailors for Senior Secondary Recruits (SSR) – ২০২১ এর আগস্ট ব্যাচের জন্য ২০০০ টা শূন্য পদে নিয়োগ করা হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে। উভয় পদের জন্য মাসিক বেতন তৃতিয় পর্যায়ে ২১,৭০০ টাকা থেকে ৬৯,১০০ টাকা করে দেওয়া হবে। ২০০১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০০৪ সালের ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে যাদের বয়স ১৮ বছর ৬ মাস থেকে ২১ বছর ৬ মাসের মধ্যে তারা এই পদের জন্য আবেদন করতে পারবে।

শিক্ষাগত যোগ্যতার ক্ষেত্রে এমএইচআরডি, সরকার কর্তৃক স্বীকৃত স্কুল শিক্ষাবোর্ডগুলি থেকে গণিত ও পদার্থবিজ্ঞানের সঙ্গে কমপক্ষে রসায়ন, জীববিজ্ঞান, কম্পিউটার সাইন্স বিষয় নিয়ে দশম এবং দ্বাদশ শ্রেনীতে উত্তীর্ণ প্রার্থীরা আবেদন করতে পারে ভারতের নৌবাহিনীর Sailors (AA ও SSR) বিভাগে চাকরির জন্য।  আবেদনের পর লিখিত পরীক্ষা, শারীরিক সক্ষমতার পরীক্ষা ও শারীরিক পরীক্ষার মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থীর নির্বাচন করা হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.