ওয়াশিংটন: মিডিয়ার উপর চাপ দিচ্ছে, অথবা মিডিয়াকে হেনস্থা করছে ভারত সরকার। এমনই অভিযোগ তুলল ওয়াশিংটন। বিশেষত ২০১৭-তে এই ধরনের অনেক অভিযোগ সামনে এসেছে বলে এক রিপোর্টে জানাল ইউএস কংগ্রেস।

২০১৭-র বার্ষিক ‘হিউম্যান রাইটস রিপোর্ট’-এ বলা হয়েছে, ‘ভারতীয় গণতন্ত্রে বাক স্বাধীনতা ও ভাবপ্রকাশের স্বাধীনতার কথা বলা হলেও, সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার কথা বলা হয়েছে। আর ভারতে মিডিয়াকে হেনস্থা করার একাধিক ঘটনা ঘটেছে।’

যদিও আমেরিকা এমনটাও উল্লেখ করেছে যে, বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতে মানবাধিকারের অবস্থা ভারতে অনেকটাই ভাল।

রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, ভারতে ২০১৭-তে সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে অন্তত ৫৪বার। অন্তত তিনটি সংবাদমাধ্যম বন্ধ হওয়ার মত ঘটনা ঘটেছে, ৪৫টি ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। মার্কিন ওই রিপোর্টে এনডিটিভি-তে সিবিআই রেড, হিন্দুস্তান টাইমসের এডিটরের পদত্যাগ এবং কার্টুনিস্ট জি বালার গ্রেফতারির ঘটনার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

এমনকি বহু সাংবাদিক হেনস্থার অভিযোগ জানিয়েছেন বলেও আলোচনা হয়েছে মার্কিন কংগ্রেসে। বহু মহিলা সাংবাদিক অভিযোগ জানিয়েছেন, যে প্রত্যেক সপ্তাহে তাঁদের ট্রোলের শিকার হতে হচ্ছে। গৌরি লঙ্কেশ খুনের ঘটনা ও শান্তনু ভৌমিকের উপর হামলার কথাও রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ