কলকাতা: পুণেতে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে তখন সবে ঘরের মাঠে টানা ১১টি টেস্ট সিরিজ জয়ের বিশ্বরেকর্ড গড়েছে বিরাট কোহলি অ্যান্ড কোম্পানি। তাতে কী? কলকাতার ক্রীড়া অনুরাগীদের ভ্রূক্ষেপ নেই সেসবে। সুনীলদের বিমান অবতরণের অপেক্ষায় তখন ফুটবল মক্কা। কলকাতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তখন জনজোয়ার। শেষ কবে ভারতীয় ফুটবল দলকে নিয়ে এমন উদ্দীপনা দেখেছে শহর কলকাতা হাজার ভেবেও মনে করতে পারছেন না কেউই। রবিবাসরীয় কোজাগরী পূর্ণিমায় বিকেল চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল হ্যাঁ, ভারতীয় ফুটবল বদলাচ্ছে। ক্রিকেট পাগল জাতিটা এখন ফুটবলকেও সাদরে বরণ করে নিতে জানে।

১৫ অক্টোবর প্রি-ওয়ার্ল্ড কাপের মেগা ম্যাচে অংশগ্রহণ করতে দু’দিন আগেই কলকাতায় পৌঁছে গিয়েছিল বাংলাদেশ। যুবভারতীর প্র্যাকটিস গ্রাউন্ডে ইতিমধ্যে ভারত ‘বধে’র স্ট্র্যাটেজি নিয়ে কাঁটাছেঁড়াও শুরু করে দিয়েছেন বাংলাদেশ কোচ জেমি ডে ও সহকারী স্টুয়ার্ট ওয়াটকিস। শুধু তাই নয়, তিলোত্তমার মাটি ছুঁয়ে ভারতীয় দলের উদ্দেশ্যে হুঙ্কার ছুঁড়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়া। এরইমধ্যে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ভারতীয় রক্ষণে সন্দেশ ঝিঙ্গানের অনুপস্থিতিতে প্রতিবেশী দেশ কি বাড়তি সুবিধা পাবে, এই প্রশ্নে দ্বিধাবিভক্ত অনেকেই।

ঝিঙ্গানের অনুপস্থিতি নিয়ে চর্চার পাশাপাশি সুনীল ছেত্রীকে নিয়ে বাড়তি সমীহ এসবের মাঝেই শহর কলকাতার হৃদকম্পন কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়ে শহরে পা রাখল ব্লু-টাইগার্সরা। রবিবাসরীয় বিকেলে বিমানবন্দরের এক্সিট গেট দিয়ে একে-একে বেরিয়ে এলেন গুরপ্রীত সান্ধু, রাহুল ভেকে, মনবীর সিং, সুনীল ছেত্রীরা। পতাকা, ফেস্টুন, ভাইকিং ক্ল্যাপসে ফুটবল পাগল অনুরাগীদের উদ্দীপনার মধ্যে দিয়েই একে একে বাসে উঠলেন ভারতীয় ফুটবলাররা। বিমানবন্দরেই বরণ করে নেওয়া হয়ে ফুটবলারদের।

তবে বিমান থেকে অবতরণের পরই অনুরাগীদের বাড়তি উদ্দীপনা কিছুটা আঁচ করতে পেরেছিলেন ফুটবলাররা। তাইতো বাসে ওঠার আগে মুহূর্তগুলো ক্যামেরাবন্দি হল কয়েকজন ফুটবলারের মুঠোফোনে। আর বাসে উঠে অনুরাগীদের উদ্দশ্যে সুনীলের চওড়া হাসিই পরিষ্কার কতটা আশ্বস্ত ভারতীয় ফুটবলের পোস্টার বয়। এমন একটা দিনের প্রতীক্ষাতেই যে ছিলেন তাঁরা।

গুয়াহাটিতে ১০ দিনেরপ্রস্তুতি শিবির শেষে ফুটবলের মক্কায় পা রাখল ভারতীয় দল। সেখানে প্রস্তুতি হিসেবে আইএসএল ফ্র্যাঞ্চাইজি নর্থ-ইস্ট ইউনাইটেডের সঙ্গে একটি প্রস্তুতি ম্যাচও খেলে ইগর স্টিম্যাচের ছেলেরা। ১-১ গোলে অমিমাংসিত সেই ম্যাচেই গোঁড়ালির চোটে বাংলাদেশ ম্যাচে মাঠের বাইরে চলে যান সেন্টার ব্যাক সন্দেশ ঝিঙ্গান। পরিবর্তে আনাস এডাথোডিকাকেই সম্ভবত দেখা যেতে পারে প্রথম একাদশে। কলকাতায় পা রাখার আগেই বাংলাদেশ ম্যাচের জন্য প্রাথমিক ২৩ জনের স্কোয়াড ঘোষণা করে দিয়েছেন ভারতীয় দলের ক্রোয়েশিয়ান কোচ।

একনজরে ২৩ জনের স্কোয়াড:
গোলরক্ষক:  গুরপ্রীত সিং সান্ধু, অমরিন্দর সিং, কমলজিত সিং

ডিফেন্ডার:   প্রীতম কোটাল, রাহুল ভেকে, আদিল খান, নরেন্দর গাহলত, সার্থক গোলুই, আনাস এডাথোডিকা, মন্দার রাও দেশাই, শুভাশিস বোস

মিডফিল্ডার: উদান্তা সিং, নিখিল পূজারি, ভিনিত রাই, অনিরুদ্ধ থাপা, আব্দুল সাহাল সামাদ, রেইনিয়ার ফার্নান্ডেজ, ব্র্যান্ডন ফার্নান্ডেজ, লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে, আশিক কুর্নিয়ান

ফরোয়ার্ড: সুনীল ছেত্রী, বলবন্ত সিং, মনবীর সিং।