সিঙ্গাপুর: প্রবাসে মহিলার শ্লীলতাহানি করার অভিযোগে হাজতবাসের শাস্তি ধার্য করা হল ভারতীয় ইঞ্জিনিয়ারের৷ ৩৩ বছর বয়েসী প্রভু নটরাজন নামের ওই ইঞ্জিনিয়ারকে তিন সপ্তাহের জন্য জেল হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷
অভিযোগ ২৩ বছর বয়েসী ওই নির্যাতিতা আংশিক সময়ের শিক্ষক হিসেবে কাজ করতেন৷

গত বছরই এই শ্লীলতাহানির ঘটনা ঘটে৷ শুক্রবার সেই অভিযোগের বিচারে নটরাজনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত৷ ২০১৬ সালে স্থানীয় সময় সন্ধে পৌনে ছটা নাগাদ একই বাসে ওঠেন নটরাজন ও অভিযোগকারিণী৷ বাসেই একসাথে বসেছিলেন দুজনে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন৷ এমনকি ঘটনাক্রমে তারা একই স্টপেজে নামেন৷ এরপরেই মেয়েটির পিছু নিতে শুরু করে নটরাজন৷ তার অ্যাপার্টমেন্টের লিফট পর্যন্ত অনুসরণ করে ও সেখানেই তার শ্লীলতাহানি করে৷

শুধু শ্লীলতাহানির অভিযোগই নয়,নটরাজনের বিরুদ্ধে অন্যের বাড়িতে বলপ্রয়োগ করে প্রবেশের চেষ্টা অভিযোগে স্থানীয় অর্থের আড়াই হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করা হয়৷ এখানেই শেষ নয়, নটরাজনের বিরুদ্ধে ২০১২ সালেও শ্লীলতাহানির অভিযোগ এসেছিল তার বিরুদ্ধে৷ তবে তখন কোনওভাবে পালিয়ে যায় সে৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ