থিম্পু: নীল পপি আর ঠাণ্ডা গুম্ফার দেশ জানাল হ্য়াপি বার্থ ডে বিরাট৷ সোশ্যাল সাইটে সেই ছবি ছড়িয়ে পড়ল বিশ্বজুড়ে৷ ছোট্ট সুন্দর শান্তি তথা সুখী দেশের তরফে ভারতের ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে৷ ভিভিআইপি অতিথি এখন স্ত্রী অনুষ্কার সঙ্গে ছুটি কাটাচ্ছেন৷

ভারত-ভুটান বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে বিরাট-অনুষ্কার এই ছবি চিরন্তন হয়ে থাকবে৷ ক্রিকেট দুনিয়ার এই তারকা খেলোয়াড়ের প্রথম ভুটান ভ্রমণ তো বটেই, তার সঙ্গে নজির-এর আগে কবে আর কোনও দেশের ক্রিকেট অধিনায়ক ভুটানে ছুটি কাটাতে এসেছিলেন কিনা তাও গবেষণার বিষয়৷ সেই দিকে থেকে বিরাট তাঁর ৩১ তম জন্মদিনটি বজ্র ড্রাগনের দেশে কাটিয়ে একটি নজির তৈরি করেছেন৷

সম্প্রতি লোনলি প্ল্যানেট তাদের রিপোর্টে প্রকাশ করে, আসন্ন ২০২০ সালের সর্বাধিক পর্যটন গন্তব্যের দেশ হিসেবে প্রথম স্থানটি ইতিমধ্যেই দখল করে নিয়েছে ভুটান৷ ১৯৫টি দেশের মধ্যে তাদের স্থান সর্বাপেক্ষা উঁচুতে৷ সেই রিপোর্টে ঘিরে ভুটানের পর্যটন মহল আলোড়িত হয়৷ এমনিতেই গ্রস ন্যাশনাল হ্য়াপিনেস বা সুখী দেশের তকমা আগেই হাসিল করেছে এই দেশটি৷ পাশাপাশি বিশুদ্ধ অক্সিজেন তৈরি, কার্বনের মাত্রা কমিয়ে আনা ও দূষণের বিরুদ্ধে তীব্র লড়াই চালিয়ে বিশ্বজুড়ে চমক তৈরি করেছেন ভুটানিরা৷

এমনই দেশ বিশ্বের সেরা পর্যটন গন্তব্য হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পরেই বিরাট-অনুষ্কার নির্ভেজাল রোমান্টিক সফর-স্বাভাবিকভাবেই ভুটান সরকার আবেগতাড়িত৷

আরও পড়ুন- সর্বাধিক সুন্দর গন্তব্য, নীল পপির ড্রাগনভূমি ভুটানের অনবদ্য স্বীকৃতি

নীল পপির দেশ, আবার তিব্বত থেকে হিমেল হাওয়া ছুটে আসে এমন দেশের নিজস্ব সংস্কৃতি ও বৈশিষ্ট অনবদ্য৷ জন্মদিন পালনের মাঝে তাই দেখছেন বিরাট ও অনুষ্কা৷ থিম্পু-পারো-পুনাখার মতো গুরুত্বপূর্ণ সুন্দর পর্যটন কেন্দ্রগুলি থাকছে তাঁদের পর্যটন সূচিতে৷ ছুটি কাটানোর মুহূর্ত নিজের টুইটারে প্রকাশ করেছেন অনুষ্কা৷ তিনি লিখেছেন বাড়ি থেকে দূরে অনবদ্য মুহূর্ত উপভোগের মুহূর্তগুলি৷

ভুটান পর্যটন মন্ত্রক আগেই জানিয়েছে, দেশের রাজা জিগমে খেসর নামগিয়াল ওয়াংচুকের নির্দেশে সুখী দেশ গড়ার পাশাপাশি প্রকৃতিকে ভিত্তি করে আরও সুন্দর পর্যটনের দেশ হিসেবে ভুটানকে গড়ে তোলা হচ্ছে৷ হিমালয় ঘেরা এই দেশটি চিন ও ভারতের মাঝখানে অবস্থিত৷