নয়াদিল্লি: ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল আবারও। ইন্ডিয়ান কাউন্সিউল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের তরফ থেকে যে হিসেব দেওয়া হয়েছে, তাতে ভারতে আক্রান্তের সংখ্যাটা ৩৯৬।

একধাক্কায় অনেকটাই বাড়ল আক্রান্তের সংখ্যা, যা রীতিমত আতঙ্কের।

এদিন রাজস্থানে নতুন করে ৩ জনের শরীরে এই ভাইরাস ধরা পড়েছে। কেরলে নতুন করে ১৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

লকডাউন করা হয়েছে, গুজরাত, রাজস্থান, পঞ্জাব, ওডিশার মত একাধিক রাজ্য। পশ্চিমবঙ্গেও বেশ কয়েকটি জায়গায় লকডাউন জারি করা হয়েছে।

রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের তরফে বলা হয়েছে, সমস্ত হাসপাতালগুলির জন্য নয়া নির্দেশিকা তৈরি করা হয়েছে। আগামী ৩১ মার্চ অবধি সেই নির্দেশিকা লাগু থাকবে। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশবাসীকে অনুরোধ করেছিলেন, শল্য চিকিত্সা জরুরি না হলে তারিখ পিছিয়ে দিন।

দিল্লিতেও জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা।

রবিবারই সেই কার্ফুর কথা ঘোষণা করা হল। রবিবার সকাল থেকেই দেশ জুড়ে চলছে জনতা কার্ফু। রবিবার রাত ৯টা পর্যন্ত সেই কার্ফু জারি থাকবে। এরপরই অর্থাথ রবিবার মধ্যরাত থেকেই ১৪৪ ধারা জারি হয়ে যাবে দিল্লিতে। জারি থাকবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত।

এদিকে, আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত কলকাতা লক ডাউনের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। জানা যাচ্ছে, আজ রবিবার নবান্নে উচ্চ পর্যায়ের একটি বৈঠক হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নিজস্ব সচিব সহ কেন্দ্রের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা এদিন বৈঠক করেন সমস্ত রাজ্যের মুখ্যসচিবদের সঙ্গে। ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই বৈঠক হয়। সেখানেই দ্রুত কলকাতা লক ডাউনের প্রস্তাব দেওয়া হয়।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প