নয়াদিল্লি: নরেন্দ্র মোদীর ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ প্রকল্পে বিরাট সাফল্য। কিছুদিনের মধ্যেই ভারতীয় সেনার হাতে আসতে চলেছে শক্তিশালী অস্ত্র। একসঙ্গে ৬টি স্বাতী উইপন লোকেটিং র‍্যাডার সিস্টেম পাচ্ছে ভারতীয় সেনা। দেশিয় প্রযুক্তিতে শক্তিশালী ‘উইপন লোকেটিং র‍্যাডার’ তৈরি করছে ডিআরডিও।

জানা গিয়েছে, ভারতীয় সেনার তরফে চিনকে হারাতে নীল নক্সায় জায়গা পেয়েছে ‘স্বাতী’। লাদাখ সীমান্তে চিনের তাবড় ব়্যাডার সর্বদা ভারতের দিকে। ভারতের যুদ্ধবিমানের ফ্রিকোয়েন্সি সহ একাধিক গোপন তথ্য ফাঁস করে নিতে চিন বদ্ধপরিকার। এবার পাল্টা হিসেবে, ভারতের তরফে ‘স্বাতী’ ব়্যাডারের নজরদারি থাকবে লাদাখে।

৪০০ কোটি ব্যয়ে ছ’টি ওয়েপন লোকেটিং র‍্যাডার সিস্টেম (WLRS) সীমান্তের কোন অংশে শত্রুপক্ষের আর্টিলারি গান রয়েছে, সেই অবস্থান জানাতে সক্ষম, এমনটাই জানা গিয়েছে সরকারি সূত্রে।

স্বাতী’কে হাতিয়ার করে, শত্রুশিবিরের মর্টার, শেল রকেট কোথায় কোথায় রয়েছে তা খুঁজে বের করে নেবে ভারতীয় সেনা। যা চিনের জন্য নিঃসন্দেহে দুঃসংবাদ। শত্রু শিবিরের ৫০ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে কোথায় কোথায় এই অস্ত্র রয়েছে, তা খুঁজে বের করতে তৎপর এই অস্ত্র।

ডিফেন্স অ্যাকুইজিশন কাউন্সিলের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে এই প্রস্তাব। মঙ্গলবারই এমন একটি বৈঠক হওয়ার কথা বলেই জানা গিয়েছে।

এদিনের বৈঠকে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ উইপন সিস্টেম নিয়ে কথা হবে। ইজরায়েলের সিপবোর্ণ ইউএভিস নিয়েও আলোচনা হবে এই বৈঠকে।

বিপক্ষের অস্ত্র কোথায় মোতায়েন করা রয়েছে সে বিষয়ে ভারতের তুরুপের তাস স্বাতী ব়্যাডার। আরও একটি বিশেষত্ব হল, এই ব়্যাডার ভারতের মাটিতে তৈরি। যা প্রতিরক্ষাক্ষেত্রে ভারতকে আরও আত্মনির্ভর করবে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও