শ্রীনগর: শান্তি ছাড়ো, অস্ত্র ধর। এক ভিডিওতে এমনই বলতে শোনা যাচ্ছে এক কাশ্মীরি সেনা জওয়ানকে। ভারতের শত্রুদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ডাক দিচ্ছেন তিনি। ইতিমধ্যেই সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। বিশেষত কিছু বিচ্ছিন্নতাবাদী এই ভিডিও নিয়ে বিতর্ক তৈরি করেছে। যদিও এই ভিডিও সত্যতা যাচাই করা সম্ভব হয়নি এবং ওই জওয়ানকেও শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।

ওই ভিডিওতে জওয়ান বলছেন, ‘আমি যেখানেই যাই সেখানেই রক্তপাত হয়, তবে এতে আমি সন্তুষ্ট নই। আমরা শান্তি আনতে ব্যর্থ।’ এরপর মদের গ্লাস শেষ করে নিজের মাথায় ভেঙে একটি কবিতা বলতে শুরু করেন তিনি। এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি সেনাবাহিনীর মুখপাত্র রাজেশ কালিয়া।

অনুমান করা হচ্ছে, ওই সেনা জওয়ান মেজর পদে রয়েছেন। মদের গ্লাস ভাঙার পর তিনি তাঁর প্রিয় কবির কবিতা পড়তে শুরু করে দেন। যেখানে তিনি কবিতাটির ব্যাখ্যাও দিয়েছেন। বলেছেন, শান্তি ছেড়ে অস্ত্রে পুজো করতে হবে। রণচণ্ডীকে জাগিয়ে তুলতে হবে। পাকিস্তানের বিষয়ে তিনি বলেন, ভারতের দিকে আঙুল তুললেই শত্রুদের বিনাশ করতে হবে। সেনা জওয়ানদের ‘অর্জুন’ বলে উল্লেখ করে কবিতার শেষ লাইনে বলেন, ‘গাণ্ডীব উঠালো অর্জুন ফির সে মহাভারত কর দো, লাহোর-করাচি-রাওয়ালপিণ্ডি তক ভারত হি ভারত হো।’

সূত্র: Indian Defence News