শ্রীনগর: ফের শহিদ হলেন ভারতীয় জওয়ান। সীমান্তে পাক সন্ত্রাস অব্যাহত। মঙ্গলবার থেকে টানা গুলির লড়াই চলছে জম্মু কাশ্মীরের রজৌরি সেক্টরে। নিয়ন্ত্রণরেখা ধরে একটানা হামলা চালাচ্ছে পাকিস্তানি সেনা বলে খবর। ভারতীয় সেনা জানিয়েছে এই হামলায় এক জওয়ান শহিদ হয়েছেন। দুই জন আহত হয়েছেন, এর মধ্যে একজন সেনা অফিসার বলে খবর।

মঙ্গলবার সন্ধের পর থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে রাজৌরি সেক্টর। বিনা প্ররোচনায় গুলি চালাতে থাকে পাক সেনা বলে অভিযোগ। যোগ্য জবাব দেয় ভারতীয় সেনাও। শুধু রাজৌরি সেক্টরই নয়, নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সুন্দেরবানি সেক্টরেও ছোট অস্ত্র ও মর্টার হামলা চালাতে থাকে পাকিস্তান। চলে একটানা শেলিং।

দুই আহত জওয়ানকে সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁদের শারীরিক অবস্ছা স্থিতিশীল। ১৪ই সেপ্টেম্বর কেন্দ্র জানিয়েছে চলতি বছরে জম্মু রিজিয়নে ৩১৮৬টি সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটিয়েছে পাকিস্তান। পয়লা জানুয়ারি থেকে ৭ই সেপ্টেম্বর পর্যন্ত হিসেবে এই তথ্য দিয়েছে ভারত। এরই সঙ্গে নয়াদিল্লি জানিয়েছে ভারত পাক আন্তর্জাতিক নিয়ন্ত্রণ রেখায় গুলি চলেছে ২৪২ বার।

এছাড়াও জানা গিয়েছে চলতি বছরে সেনার ৮জন জওয়ান শহিদ হয়েছেন। ৫জন বিএসএফ জওয়ান আহত হয়েছেন। ২০২০ সালে পাকিস্তান ২৭৩০ বারেরও বেশি সংঘর্ষবিরতি চুক্তি ভঙ্গ করেছে বলে সেনা সূত্রে খবর। ভারতীয় সেনার এক সূত্র জানাচ্ছে এই বছরের শুরু থেকে যে গুলির লড়াই চালিয়েছে পাকিস্তান তাতে ২৪ জন সাধারণ নাগরিক মারা গিয়েছেন। শতাধিক আহত হয়েছেন।

এদিকে, চোরের মায়ের বড় গলার মতো পাকিস্তানও এই ইস্যুতে বিবৃতি প্রকাশ করে। পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রক একটি বিবৃতি প্রকাশ করে জানায়, ভারতীয় সেনা ক্রমাগত সীমান্তের কাছাকাছি সেনা ছাউনি ও ঘন জনবসতি পূর্ণ এলাকা লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ছে।

মর্টার হামলা চলছে, সাথে স্বয়ংক্রিয় রাইফেল দিয়ে গুলি বর্ষণ করা হচ্ছে। ওই বিবৃতি থেকে জানা গিয়েছে এই বছরে পাক সীমান্তে মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের। আহত হয়েছেন ১৬৮ জন। মোট ২১৫৮টি সীমান্তে সংঘর্ষবিরতি চুক্তির ঘটনা ঘটেছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।