বেঙ্গালুরু: বিরাট স্বপ্নপূরণ! ৭৫ রানে বেঙ্গালুরু টেস্ট জিতে চার ম্যাচের সিরিজে সমতা (১-১) ফেরাল ভারত৷ ১৮৮ রান তাড়া করে ১১২ রানে শেষ অস্ট্রেলিয়া৷ ৪১ রান ছ’ উইকেট নিয়ে একাই অজি ইনিংস শেষ করে দেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন৷ মাত্র আড়াই ঘণ্টা শেষ হয়ে যায় অজি ইনিংস৷ অশ্বিনের ভেলকিতে তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে স্মিথবাহিনী৷ মাত্র ১১ রানে শেষ ছ’টি উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া৷

মাত্র চার অজি ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের রানে পৌঁছন৷ সর্বোচ্চ স্কোর অধিনায়ক স্টিভ স্মিথের ২৮ রান৷ ভারতীয় বোলারদের সামনে এদিন দাঁড়াতেই পারেননি অজি ব্যাটসম্যানরা৷ জয়ের স্বপ্ন দেখা বিরাটবাহিনী এত দ্রুত অজি ইনিংস শেষ করে দেবে তা ভাবতেই পারেননি৷ এদিন ছ’টি উইকেট তুলে নিয়ে বিষেণ সিং বেদীকে টপকে যান অশ্বিন৷ অশ্বিনের থেকে ২০টি টেস্ট বেশি খেলে ২৬৬টি উইকেট নিয়েছেন বেদী৷ অশ্বিন মাত্র ৪৭টি টেস্টে অশ্বিনের ঝুলিতে ২৬৯টি উইকেট৷ অশ্বিনের পাশাপাশি দারুণ বোলিং করেন উমেশ যাদব এবং রবীন্দ্র জাদেজা৷ যাদব দু’টি উইকেট নেন৷ আর জাদেজা ৮ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র তিন রান দিয়ে একটি উইকেট তুলে নেন৷

এর আগে এদিন ২৭৪ রানে শেষ হয়ে যায় ভারতের দ্বিতীয় ইনিংস৷ সর্বোচ্চ চেতেশ্বর পূজারা ৯২ রান করেন৷ ৫২ রান করেন অজিঙ্ক রাহানে৷ তবে এদিনও ব্যর্থ ভারতের লো-অর্ডার৷ মঙ্গলবার মাত্র ৫৯ রানে শেষ ছ’টি উইকেট হারায় ভারত৷ এদিন অর্ধ-শতরান পূর্ণ করেন গতকালের অপরাজিত ব্যাটসম্যান অজিঙ্ক রাহানে৷ কিন্তু তারপরই ৫২ রানে মিচেল স্টার্কের বলে আউট হয়ে যান তিনি৷ সেই সঙ্গে শেষ হয় তাঁর সঙ্গে পুজারার ১১৮ রানের পার্টনারশিপ৷ দু’ ইনিংসেই হাফ-সেঞ্চুরি করে ম্যাচের সেরা লোকেশ রাহুল৷

এদিন সকালে নতুন বল নেয় অস্ট্রেলিয়া৷ এর পরই ভারতীয় ব্যাটসম্যনরা অজি পেসারদের সামনে ভেঙে পড়েন৷ রাহানেকে আউট করেই তার পরের বলেই করুণ নায়ারকে ফিরিয়ে দেন স্টার্ক৷ আগের টেস্টে ট্রিপল রান করা নায়ার ঘরের মাঠে দ্বিতীয় ইনিংসে খালি হাতেই ফেরেন৷ এরপর পূজারাকে ৯২ রানে ফিরিয়ে আঘাত হানেন জোশ হ্যাজেলউড৷ ব্যাট হাতে ব্যর্থ অশ্বিনও৷ মাত্র ৪ রান করে হ্যাজেলউডেরই শিকার হন তিনি৷ উমেশ যাদবও মাত্র ১ রান করে হ্যাজেলউডের বলে প্যাভিলিয়নের ফেরেন৷ দলের রান তখন ৯ উইকেটে ২৫৮৷ এরপর শেষ উইকেট জুটিতে ১৬ রান যোগ করেন ঋদ্ধিমান সাহা ও ইশান্ত শর্মা৷ ইশান্তকে ছ’রানে আউট করে ভারতের ইনিংস গুটিয়ে দেন ও’কিফ৷ ঋদ্ধি ২০ রান করে অপরাজিত থাকেন৷ অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে হ্যাজেলউড ৬৭ রানে ৬ উইকেট নিয়েছেন৷ স্টার্ক ও ও’কিফ নিয়েছেন ২ টি করে উইকেট ৷ সিরিজের তৃতীয় টেস্ট ১৬ তারিখ থেকে রাঁচিতে৷