নয়াদিল্লি: ফেব্রুয়ারি মাসের শেষে দু’দিনের ভারত সফরে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প, বিশেষ এই সফরের আগে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভীষণ উচ্ছ্বসিত বলেই খুশিপ্রকাশ জানিয়েছেন।

এই প্রসঙ্গে বুধবার নরেন্দ্র মোদী ট্যুইট করেছেন, “ভারত সম্মানীয় অতিথিদের স্মরণীয় অভ্যর্থনা জানাবে। এই সফর ভীষণ স্পেশাল যা ভারত-আমেরিকার সম্পর্ককে অনেকদূর নিয়ে যাবে এবং স্থায়ী করবে”।

ট্যুইটের দ্বিতীয় অংশে মোদী লিখেছেন, “ভারত এবং আমেরিকার গণতন্ত্র এবং বহুত্ববাদের প্রতি দায়বদ্ধ। দুই দেশ বিভিন্ন ইস্যুতে একে অপরকে সহযোগিতা করছে। দুই দেশের বলিষ্ঠ বন্ধুত্বের ভবিষ্যদ্বক্তা শুধুমাত্র নাগরিকরা নয় গোটা বিশ্বের”।

হোয়াইট হাউসের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, ‘প্রেসিডেন্ট ও ফার্স্ট লেডি দিল্লি ও অহমদাবাদ সফরে যাবেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাটে রয়েছে অহমদাবাদ এবং মহাত্মা গান্ধীর জীবনে ও ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের নেতৃত্বে এর বিশেষ অবদান রয়েছে।’

ভারত সফর নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে ট্রাম্প বলেছেন, ‘ভারতে যাচ্ছি। মোদী বলেছেন, ওখানে আমরা লক্ষ লক্ষ মানুষকে পাব। বিমানবন্দর থেকে নতুন স্টেডিয়াম পর্যন্ত আমরা প্রায় ৫০-৭০ লক্ষ মানুষকে পাব বলে আশাপ্রকাশ করেছেন তিনি।’

২০১৯ সালে হিউস্টনে হওয়া ‘হাউডি, মোদী’ সম্পর্কে বলতে গিয়ে রসিকতার সুরে তিনি বলেন, ‘আমাদের ৫০,০০০ লোক হয়েছিল। বিমানবন্দর থেকে নতুন স্টেডিয়াম পর্যন্ত ৫০-৭০ লাখ লোক করতে পারিনি, সেটা খারাপ। জানেন, ওটা বিশ্বের বৃহত্তম স্টেডিয়াম।

ওঁরা ওটা তৈরি করছেন। প্রায় কাজ শেষ। এই সফরের জন্য মুখিয়ে আছি।’ মোদীর সম্পর্কে ট্রাম্প বলেন, ‘তিনি আমার ভালো বন্ধু। তিনি একজন ভদ্রলোক।’

প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথমবার ভারত সফরে আসছেন ট্রাম্প। তবে তাজমহলে মুগ্ধ ট্রাম্প এবারের সফরে তাজমহলে যাবেন কি না, সে বিষয়ে কোনও উল্লেখ করেনি হোয়াইট হাউস। তবে অহমদাবাদে যাওয়ার কথা জানানো হয়েছে। সেখানে ‘হাউডি, মোদী’-র আদলে আয়োজিত ‘কেম ছো, ট্রাম্প!’-এ যোগ দেবেন তিনি। ট্রাম্প-মোদী মিলে মোতেরা স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করবেন বলে খবর। সেই কারণে ১,১০,০০০ আসনবিশিষ্ট বিশ্বের বৃহত্তম ক্রীড়াঙ্গন তৈরির কাজ তড়িঘড়ি শেষ করার কাজ চলছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।