আম্মান: জর্ডনের বিরুদ্ধে ভারতের বহু প্রতিক্ষীত ম্যাচ বাতিল৷ টানা বৃষ্টির কারণে বিমান বিভ্রাটের মুখে পড়ে সুনীলরা৷

শনিবার জর্ডনের বিরুদ্ধে ম্যাচ খেলার কথা ছিল ভারতীয় দলের৷ কিন্তু বৃষ্টির কারণে বিমান দেড়িতে ছাড়ায় শুক্রবার জর্ডনের আম্মানে পৌঁছতে অনেকটাই দেড়ি হয়ে যায় ভারতের৷

আরও পড়ুন- অবশেষে বিয়ের পিঁড়িতে রোনাল্ডো!

১৫ সদস্যের ভারতীয় দল দুটি গ্রুপে ভাগ করে আম্মান পৌঁছায়৷ প্রথম গ্রুপে ভারতীয় গোলকিপার গুরপ্রীত সিং সহ একাধিক ফুটবলার বৃহস্পতিবার রাতে পৌঁছে গেলেও বাকি ফুটবলার ও অফিসিয়ালসরা শুক্রবারের বিমানে ধরে৷ সেখানেই বিভ্রাট৷ খারাপ আবহাওয়ার জন্য ১০ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে ভারতীয় দলকে কুয়েত বিমানবন্দরে আটকে থাকতে হয়৷

আরও পড়ুন- কেকেআর ফ্র্যাঞ্চাইজির কাছে কৃতজ্ঞ নাগারকোটি

ফলে নির্ধারিত সময়ে( ম্যাচ শুরুর ২৪ ঘন্টা আগে) ভারতের পুরো দল আম্মানে এসে না পড়ায় ম্যাচ বাতিল ঘোষণা করা হয়৷ সূচি অনুযায়ী মঙ্গলবার সৌদি আরবের বিরুদ্ধে ম্যাচ রয়েছে জর্ডনের৷ সেকারণেই ভারতের বিরুদ্ধে বাতিল ম্যাচটি নতুন করে আয়োজন করা সম্ভব হয়নি৷

শুরু থেকে জর্ডনের বিরুদ্ধে এই ম্যাচ ঘিরে ভারতীয় ফুটবল ফ্যানেদের মধ্যে প্রত্যাশার পারদ ছিল তুঙ্গে৷ চিনের বিরুদ্ধে সুনীলরা ম্যাচ ড্র করার পর ব়্যাংকিংয়ে ভারতের থেকে পিছয়ে থাকা জর্ডনের বিরুদ্ধে আরও ভাল ফলের প্রত্যাশা রেখেছিল ফ্যানেরা(ভারতের ব়্যানকিং ৯৭, জর্ডনের ১১২)৷ যদিও এই ম্যাচের আগে চোটের কারণে সুনীল ছিটকে যাওয়ায় কিছুটা হলেও ফ্যানেদের মন ভাঙে৷

আরও পড়ুন- পৃথ্বীদের ব্যাটে ভর করে বড় রানের পথে ভারত

৫ নভেম্বর আইএসএলে কেরালা ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে গোড়ালিতে চোট পেয়েছিলেন বেঙ্গালুরু স্ট্রাইকার সুনীল ছেত্রী। ভারতীয় ফুটবলের পোস্টার বয়ের জন্য সেই চোটই কাল হয়ে দাঁড়ায়৷ সুনীলের ছিটকে যাওয়ার পর এবার ম্যাচ বাতিলে স্বভাবতই হতাশ ভারতীয় ফুটবল অনুরাগীরা৷

এএফসি আশিয়ান কাপে(২০১৯) ভালো ফলের লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই চিনের সঙ্গে একটি প্রীতি ম্যাচ খেলে ফেলেছে ভারত। প্রথমবার চিনের মাটিতে গিয়ে তাদের রুখে দিয়ে আলোড়ন ফেলে দেয় স্টিফেন কনস্ট্যানটাইনের ছেলেরা। প্রস্তুতি পর্বে যাতে কোনও খামতি না থাকে সেই লক্ষ্যে জর্ডনের বিরুদ্ধে পরবর্তী ফ্রেন্ডলি আয়োজন করেছিল সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন।