রাওয়ালপিন্ডি: অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে রোহিত শর্মার প্রেম এবারও ব্যর্থ হয়নি৷ রবিবার চিন্নাস্বামীতে সিরিজ নির্ণায়ক ম্যাচে বিধ্বংসী মেজাজে দেখা গেল ‘হিটম্যান’-কে৷ প্যাট কামিন্স, মিচেল স্টার্ক, অ্যাডাম জাম্পাদের বিরুদ্ধে ১১৯ রানের ইনিংস খেলে ভারতকে ম্যাচ ও সিরিজ জেতাতে বড় ভূমিকা নেন টিম ইন্ডিয়ার এই ডানহাতি ওপেনার৷ রোহিতের এই ইনিংসের ভূয়সি প্রশংসা শোনা গেল প্রাক্তন পাক পেসার শোয়েব আখতারের গলায়৷ শুধু তাই নয়, রোহিতের এই ইনিংসকে তাঁদের বিরুদ্ধে করা সচিন তেন্ডুলকরের ব্যাটিংয়ের সঙ্গে তুলনা করেন রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস৷

চিন্নাস্বামীতে রোহিতের ১১৯ রানের ইনিংস সাজানো ছিল আটটি বাউন্ডারি ও ছ’টি ওভার বাউন্ডারিতে। ভাইস-ক্যাপ্টেনকে যোগ্য সঙ্গত দেন ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি। ৯১ বলে ৮৯ রানের ইনিংস খেলেন ভারত অধিনায়ক। দ্বিতীয় উইকেটে ১৩৭ রান যোগ করেন রোহিত-বিরাট৷ এই দু’জনের ব্যাটে ২৮৭ রান করে ১৫ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে নেয় ভারত৷ সেই সঙ্গে তিন ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ ২-১ জিতে নেয় টিম কোহলি৷

অজি বোলারদের বিরুদ্ধে রোহিতের ইনিংসের প্রশংসা করে শোয়েব নিজের ইউটিউব চ্যানেল শোয়েব আখতার তাঁর ইউটিউব চ্যানেলে বলেন, ‘যখন রোহিতের ব্যাট চলে তখন ভালো বল না খারাপ বল কোনও কিছুই ও কেয়ার করে না যে কোনও শট খেলার দক্ষতা ওর রয়েছে৷ খুব সহজেই ও ব্যাটিং করে৷ যেটা অত্যন্ত স্বাভাবিক৷’ অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এর আগেও ওয়ান ডে ক্রিকেটে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন রোহিত৷

প্রাক্তন পাক স্পিডস্টার আর বলেন, ‘ওর জন্য সব খুব সহজ হয়ে যায়৷ চিন্নাস্বামীর মতো পিচে ব্যাট করাটা খুব একটা সহজ নয়, কিন্তু সেখানে রোহিত রেয়াৎ করেনি। বোলার কো উসনে মার মারকে ভর্তা নিকাল দিয়া। অ্যাডাম জাম্পা, মিচেল স্টার্ক কাউকেই ছাড়েনি। ও এমন কাট শট খেলছিল যেমনটা একসময় সচিন আমাকে খেলত।’

দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ২০০৩ বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সহজেই ম্যাচ জিতে নিয়েছিল ভারত৷ সেঞ্চুরিয়নে আখতারকে আপার-কাটে থার্ড ম্যানের উপর দিয়ে ছক্কা হাঁকিয়ে ছিলেন সচিন৷ ২০১৯ বিশ্বকাপ পাকিস্তানকেও গুড়িয়ে দেয় ভারত৷ ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে হাসান আলিকে থার্ড ম্যানের উপর দিয়ে ছয় মেরে ছিলেন রোহিত৷

সিরিজ নির্ণায়ক ম্যাচে ভারতের জয় প্রসঙ্গে শোয়েব বলেন, ‘চিন্নাস্বামীতে অস্ট্রেলিয়াকে গুড়িয়ে দিয়েছে ভারত। যেভাবে ভারত, অস্ট্রেলিয়াকে নিয়ে খেলেছে তাতে মনে হচ্ছিল নিজেদের বাচ্চাদের সঙ্গে খেলছে।’