হানোই: ভারতের কাছ থেকে ব্রহ্মোস সুপারসনিক মিসাইল কিনেছে ভিয়েতনাম। ডোকলাম সংঘাত চলাকালীনই এই খবর শিরোনামে আসে। কভিয়েতনাম এই খবরে প্রকাশ করার পরেই তড়িঘড়ি ভারত জানায়, যে এখনও পর্যন্ত ভিয়েতনামকে ব্রহ্মোস মিসাইল বিক্রি করার বিষয়ে কোনও চুক্তি হয়নি। তবে সূত্রের খবর, গোপনে ভিয়েতনামকে ইতিমধ্যেই ব্রহ্মোস মিসাইল দিয়েছে ভারত। ভিয়েতনামের সংবাদমাধ্যম অন্তত এমনটাই দাবি করছে। অর্থাৎ, ভারত আর ভিয়েতনাম- চিনের দুই শত্রুর হাতেই এখন রয়েছে দুর্ধর্ষ এই মিসাইল।

তবে ভিয়েতনামের মিডিয়া এটাও দাবি করেছে যে, হানোই শুধু ব্রহ্মোস কিনেছে তাই নয়, ইতিমধ্যেই মোতায়েন করেছে ৬০০০ পাউন্ডের এই সুপারসনিক মিসাইল। তাই অণুমান করা হচ্ছে যে মুখে অস্বীকার করলেও আসলে গোপনে ভিয়েতনামের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়েছে ভারত।

আরও খবর: চিন সীমান্তে কতগুলি ব্রহ্মোস রয়েছে? তথ্য গোপন রাখবে ভারত

চিনের সঙ্গে ডোকলাম সমস্যা চলাকালীনই এক খবর প্রকাশ্যে আসে। চিনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ প্রতিপক্ষ ভিয়েতনামের হাতে ‘ব্রহ্মোস’ সুপারসিন ল্যান্ড অ্যাটাক মিসাইল তুলে দেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর।

যদি ভিয়েতমনাম ভারতের থেকে ‘ব্রহ্মোস’ কিনে থাকে, তাহলে যে কার্যত চিনকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হবে, তেমনটাই মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল। এই চুক্তি আদতে চিনের বিপক্ষে ভারতের একটা কূটনীতি বলেও মনে করা হচ্ছে। এর আগে দুই দেশের মধ্যে নৌবাহিনীর জন্য ভেসেল নিয়ে চুক্তি হয়। অদূর ভবিষ্যতে আকাশ মিসাইল নিয়ে চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে। গত বছর ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের তরফে বেসরকারি সংস্থাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল যাতে ভিয়েতনামের ব্যাটল ট্যাংকের প্রযুক্তির আগ্রেডেশন করা হয়। অন্যদিকে, চিন ভারতের শত্রু দেশ পাকিস্তানকে অস্ত্র যোগান দিয়ে নয়াদিল্লিকে চাপে রাখতে চাইছে।

আরও খবর: অগ্নি-ব্রহ্মোস হাতে প্রায় ১ লক্ষ সেনা নামছে চিন সীমান্তে

অন্যদিকে, শুধু ভিয়েতনামই নয়, ব্রহ্মোস কিনতে চাইছে মালয়েশিয়া, ব্রাজিলের মত দেশও। অন্যদিকে ভারত ও রাশিয়া যৌথ উদ্যোগে তৈরি করছে ‘ব্রহ্মোস এনজি’, যা আসল ব্রহ্মোসের অপেক্ষাকৃত ছোট ভার্সান। রাশিয়া এই মিসাইলের ইঞ্জিন তৈরি করে, আর ভারতের DRDO তৈরি করে ওই মিসাইলের গাইডেন্স সিস্টম ও ফায়ার কন্ট্রোল সিস্টেম। শুধুমাত্র চিনের প্রতিপক্ষকে অস্ত্র দেওয়া হচ্ছে বলেই নয়, এই চুক্তি বাস্তবায়িত হলে আরও একটি নজির গড়বে ভারত। এই প্রথম ভারত অন্য কোনও দেশকে এত গুরুত্বপূর্ণ একটা অস্ত্র তুলে দেবে। প্রায় গত ১০ বছর ধরে বিদেশে রফতানি করতে চাইছে BrahMos Corp.

এই মিসাইলের সমান কোনও মিসাইল এই মুহূর্তে বিশ্বে নেই। গতি কিংবা ক্ষমতায় বর্তমানে বিশ্বের সবথেকে শক্তিশালী মিসাইল। এর গতি হবে ৩০০০ কিলোমিটার/ ঘণ্টা। চিন সীমান্তে ভারতও ব্রহ্মোস মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। যদিও কতগুলি ব্রহ্মোস মোতায়েন করা হবে, সেটা গোপনি রাখতে চায় কেন্দ্র।