হোভ: ত্রিদেশীয় লড়াই হলেও অত্যন্ত লম্বা ছিল ইংল্যান্ডের মাটিতে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের এই যুব ওয়ান ডে টুর্নামেন্ট৷ ভারত, ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশ পরস্পরের মধ্যে চার রাউন্ড করে ম্যাচ খেলে৷ অর্থাৎ লিগের মোট ৮টি করে ম্যাচ খেলার পর ফাইনালে প্রবেশ করে ভারত ও বাংলাদেশ৷ লিগে একবার বাংলাদেশের যুব দলের কাছে পরাজিত হলেও ফাইনালে কোনও ভুল করেনি ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দল৷ বাংলাদেশকে ৬ উইকেটে পরাজিত করে ত্রিদেশীয় যুব ওয়ান ডে টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হয় তারা৷

আরও পড়ুন: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে বিশ্বরেকর্ড কোহলির

ফাইনালে ব্যাট হাতে ভারতকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন দলনায়ক প্রিয়ম গর্গ৷ ক্যাপ্টেনকে যথাযোগ্য সঙ্গত করেন দুই ওপেনার যশস্বী জসওয়াল ও দিব্যাংশ সাক্সেনা৷ লড়াকু হাফসেঞ্চুরি করেন উইকেটকিপার ধ্রুব জুরেলও৷

ফাইনালে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ৷ নির্ধারিত ৫০ ওভারে ২৬১ রান তুলে অল-আউট হয়ে যায় তারা৷ মাহমুদুল হাসান জয় ১০৯ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলেন৷ ৬০ রান করেন পারভেজ হোসেন ইমন৷ এছাড়া ৩২ রান করেন শামিম হোসেন এবং ২৬ রানের যোগদান রাখেন তানজিদ হাসান৷ বাকিরা কেউ দু’অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি৷

আরও পড়ুন: সৌরভের রেকর্ড টপকে গেলেন বিরাট

ভারতের হয়ে দু’টি করে উইকেট নেন কার্তীক ত্যাগী ও সুশান্ত মিশ্র৷ ১টি করে উইকেট নিয়েছেন রবি বিষ্ণোই ও শুভাং হেজ৷ বাংলাদেশের চার জন ব্যাটসম্যান রান-আউট হয়ে ক্রিজ ছাড়েন৷

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারত ৪৮.৪ ওভারে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ২৬৪ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়৷ প্রিয়ম গর্গ ৬৬ বলে ৭৩ রান করেন৷ যশস্বী জসওয়াল ৫০ ও দিব্যাংশ সাক্সেনা ৫৫ রান করে আউট হন৷ প্রজ্ঞেশ কানপিলেওয়ার ২ রান করে সাজঘরে ফেরেন৷ ধ্রুব জুরেল ৫৯ ও তিলক বর্মা ১৬ রান করে অপরাজিত থাকেন৷

আরও পড়ুন: মাইলস্টোন ম্যাচে লারার জোড়া রেকর্ড ভাঙলেন ক্রিস গেইল

টুর্নামেন্টের ৬টি ম্যাচে মাঠে নেমে সর্বোচ্চ ৩২১ রান করেছেন দিব্যাংশ৷ তিনি ১টি সেঞ্চুরি ও ২টি হাফসেঞ্চুরি করেন৷ ৪টি হাফসেঞ্চুরিসহ ৭ ম্যাচে ২৯৪ রান করেন যশস্বী৷ সুশান্ত মিশ্র ভারতের হয়ে টুর্নামেন্টে সর্বাধিক ১১টি উইকেট দখল করেন৷ ফাইনালসহ টুর্নামেন্টের ৯টি ম্যাচে ভারত জয় পেয়েছে ৪টি ম্যাচে৷ পরাজিত হয়েছে ৩টি ম্যাচে৷ ২টি ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হয়েছে৷