রাজকোট: প্রথম ম্যাচ হারের পর অধিনায়ক রোহিত শর্মা জানিয়েছিলেন রক্ষা করার মত রান পুঁজিতে থাকলেও ফিল্ডিংয়ের ঘাটতির কারণেই হারতে হয়েছে দলকে। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে রান তাড়া করতে নেমে ফের স্বমহিমায় টিম ইন্ডিয়া। মাইলস্টোন ম্যাচে বিধ্বংসী ইনিংস খেলে দলকে সিরিজে সমতায় ফিরিয়ে এনেছেন স্ট্যান্ড-ইন অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

সাম্প্রতিক সময়ে পরিসংখ্যানে চোখ বোলালে দেখা যাবে সংক্ষিপ্ত ফর্ম্যাটে রান তাড়া করাতেই বেশি স্বচ্ছন্দ ‘মেন ইন ব্লু’। আর বৃহস্পতিবার বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে রান তাড়া করে ম্যাচ জিতে অচিরেই এক নজির গড়ে ফেলল টিম ইন্ডিয়া।

আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেটে রান তাড়া করে ম্যাচ জয়ের নিরিখে এতদিন শীর্ষে ছিল অস্ট্রেলিয়া। বৃহস্পতিবার রাজকোটে অজিদের সেই রেকর্ড ভেঙে নয়া রেকর্ড সেট করল ভারতীয় দল। রান তাড়া করতে নেমে ৬১টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচের মধ্যে সর্বাধিক ৪১টি’তে জয়লাভ করে শীর্ষে স্থান করে নিল ‘মেন ইন ব্লু’। সেখানে ৬৯টি ম্যাচে রান তাড়া করে ৪০টি’তে জিতে দ্বিতীয়স্থানে অজিরা। তালিকার তৃতীয়স্থানে রয়েছে পাকিস্তান। ৬৭টি ম্যাচে রান তাড়া করে ৩৬ টি ম্যাচে সফল তাঁরা।

আর পরে ব্যাট করে টিম ইন্ডিয়ার এই দুরন্ত সাফল্যের পিছনে ব্যাট হাতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান অধিনায়ক বিরাট কোহলির। সফলভাবে রান তাড়া করে দলের ম্যাচ জয়ের ক্ষেত্রে কোহলির ব্যাটিং গড় ১১১.৫০। সেখানে প্রথম ব্যাটের ক্ষেত্রে কোহলির ব্যাটিং গড় ৩৩.৪০। অধিনায়কের পর সফল তাড়া করার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন রোহিত শর্মা কিংবা মহেন্দ্র সিং ধোনিও।

বৃহস্পতিবার রাজকোটে সিরিজে টিকে থাকার ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে টিম ইন্ডিয়া। নির্ধারিত ২০ ওভারে টাইগাররা ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৫৩ রান তোলে। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ভারত ১৫.৪ ওভারে ২ উইকেটের বিনিময়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১৫৪ রান তুলে নেয়। ৮ উইকেটের দাপুটে জয়ে তিন ম্যাচের চলতি টি-২০ সিরিজে ১-১ সমতা ফেরায় টিম ইন্ডিয়া। তবে রান তাড়া করে ম্যাচ জিতে রেকর্ড গড়লেও স্টপ-গ্যাপ অধিনায়কের লক্ষ্য প্রথমে ব্যাট করে টার্গেট ডিফেন্ড করা। কারণ সাম্প্রতিক সময়ে এই বিষয়টিতে সবচেয়ে বেশি ব্যর্থ হয়েছে ভারতীয় দল।