নয়াদিল্লি: ভারতের পরমাণু শক্তি উৎপাদনের ক্ষমতা দ্বিগুণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। ১৪০০০ মেগাওয়াট শক্তি উৎপন্ন করা হবে বলে জানিয়ে ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। এটাই দেশের মূল শক্তির উৎস হতে চলেছে বলেও জানান তিনি। বর্তমানে ভারত ৬৮০০ মেগাওয়াট পরমাণু শক্তি উৎপাদন করে। অবশেষে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর কথা মতো পরমাণু শক্তি উৎপাদনের ক্ষমতা দ্বিগুণ করার প্রক্রিয়া শুরু হল বলে জানা যাচ্ছে।

মন্ত্রী জানিয়ে ছিলেন, দেশে তৈরি যন্ত্রের সাহায্যেই আরও ৭০০০ মেগাওয়াট শক্তি উৎপন্ন করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। ৭০০ মেগাওয়াটের ১০টি ইউনিট তৈরি করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের অনুমোদন মিলেছে। ১০টি দেশে তৈরি রিঅ্যাকটর বসানো হবে বলে জানা গিয়েছে। সেই মতো কাজ শুরু হয়েছে বলে সূত্রে জানা গিয়েছে।

যেহেতু পারমাণবিক শক্তি খুব দামি, তাই এটি কোনোদিনই ভারতের মূল শক্তির উৎস হিসেবে বিবেচিত হয়নি। এই পারমাণবিক শক্তির ক্ষেত্রে কিছু লাভ রয়েছে আর এটি কার্বন ফ্রি বলেও জানা গিয়েছে। এতে দূষণ অনেক কম হয়। আর ২৪ ঘণ্টা পাওয়া যাবে এমন শক্তির উৎস দরকার বলেও সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

যদিও চিনের বাধায় এনএসজিতে অন্তর্ভুক্ত হতে পারছে না ভারত। তাই বিদেশ থেকে ইউরেনিয়াম আনার ক্ষেত্রেও অসুবিধা রয়েছে। তা সত্ত্বেও ভারত এক্ষেত্রে ক্রমশ এগিয়ে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী।