মাউন্ট মাউনগানুই: বিরাট কোহলির নেতৃত্বে ভারতীয় দল ইতিমধ্যেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দারুণসব মাইলস্টোন স্থাপণ করেছে এতদিন৷ বিরাটের নেতৃত্বে টিম ইন্ডিয়ার ধারাবাহিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার অবকাশ না থাকলেও এবার কোহলির অধিনায়কত্বেই লজ্জার এক নজির গড়ল ভারত৷ তিন দশক পর ৩ বা তার বেশি ম্যাচের দ্বি-পাক্ষিক ওয়ান ডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হল ভারত৷

ওয়ান ডে ক্রিকেটের ইতিহাসে এই নিয়ে তিনবার ৩ বা তার বেশি ম্যাচের দ্বি-পাক্ষিক সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হল ভারত৷ আগের দু’বারই ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে পর্যুদস্ত হতে হয়েছে ভারতকে৷ শেষবার ১৯৮৯ সালে ক্যারিবিয়ানদের কাছে ক্লিন স্যুইপ হয়েছিল টিম ইন্ডিয়া৷ শেষমেশ ৩১ বছর পর আবার লজ্জার সেই স্মৃতি ফিরল ভারতীয় শিবিরে৷

আরও পড়ুন: বর্ষসেরা ক্রিকেটার হয়েও অবসরের ভাবনা ওয়ার্নারের

১৯৮৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ৫ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে ০-৫ ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল ভারত৷ তার আগে ১৯৮৩-৮৪ মরশুমে ঘরোর মাঠে ক্যারিবিয়ানদের কাছে ০-৫ ব্যবধানে সিরিজ খুইয়েছিল টিম ইন্ডিয়া৷ এবার নিউজিল্যান্ডের কাছে ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ হারতে হল কোহলিদের৷ যদিও ১ ও ২ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে ভারতের হোয়াইটওয়াশ হওয়ার নজির রয়েছে একাধিক৷

১৯৯৭ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে ৩ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজে ০-৩ ব্যবধানে হেরেছিল ভারত৷ তবে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচটি প্রথমে পরিত্যক্ত হয়৷ পরে রিজার্ভ ডে’তে ম্যাচটি পুনরায় খেলা হলে ভারত পরাজিত হয়৷ এছাড়া বেশ কয়েকটি সিরিজের একটি ম্যাচ মন্দ আবহাওয়ায় ভেস্তে যাওয়ায় হোয়াইটওয়াশের লজ্জা থেকে রেহাই পেয়েছে ভারত৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ ফাইনাল শেষে ঝামেলায় জড়ানো পাঁচ যুব ক্রিকেটারকে শাস্তি আইসিসি’র

চলতি নিউজিল্যান্ড সফরে ৫ ম্যাচের টি-২০ সিরিজে কিউয়িদের ৫-০ ব্যবধানে বিধ্বস্ত করে ভারত৷ পরে হ্যামিল্টনের প্রথম ওয়ান ডে ম্যাচে ৪ উইকেটে, অকল্যান্ডের দ্বিতীয় ওয়ান ডে ম্যাচে ২২ রানে ও বে ওভালের তৃতীয় একদিনের ম্যাচে ৫ উইকেটে পরাজিত হয় টিম ইন্ডিয়া৷