নয়াদিল্লি:দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিল, নাগরিকত্ব আইন সহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে নজর দিয়েছে মোদী দরকার। তারই মাঝে কাঁটা হয়ে দেখা দিল বিশ্ব গণতন্ত্র সূচক। এক্ষেত্রে ধাক্কা মোদী সরকারের জন্য।

এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে বিশ্ব গণতন্ত্র সূচকে দশ ধাপ নীচে নেমে গিয়েছে মোদীর ভারত। যার মূল কারণ হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে ব্যক্তি স্বাধীনতার উপরে হস্তক্ষেপ।

বিশ্ব গণতন্ত্র সূচকে দেখা গিয়েছে ১০ ধাপ নেমে ৫১ নম্বরে রয়েছে ভারত। ২০০৬ সালে প্রথম রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল তারা। তার পরের বছরে ভারতের প্রাপ্ত নম্বর ছিল ১০ মধ্যে ৭.২৩। আর এবারে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৬.৯। আর গণতন্ত্র সূচকে গড় রয়েছে ১০ এর মধ্যে ৫.৪৪।

প্রকাশিত হওয়া এই রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে ব্যক্তি স্বাধীনতা না থাকার কারণেই গণতন্ত্র সূচকে পিছিয়ে গিয়েছে ভারত। এছাড়াও জানানো হয়েছে নাগরিকত্ব আইনের জেরে ২০২০ সালেও নীচের দিকে থাকবে ভারত। এছাড়াও ওই রিপোর্টে উঠে এসেছে জম্মু ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি।

গণতন্ত্র সূচকে সবার উপরে রয়েছে নরওয়ে। তারপরেই রয়েছে আইসল্যান্ড। তার পরে রয়েছে সুইডেন এবং নিউজিল্যান্ড। পাঁচ নম্বরে রয়েছে ফিনল্যান্ড। ১০৮ নম্বরে রয়েছে পাকিস্তান।